শিক্ষক নিয়োগ মামলায় বড় ধাক্কা রাজ্য সরকারের, নতুন করে টেট পরীক্ষার নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

খড়গপুর ২৪×৭ ডিজিটাল: শিক্ষক নিয়োগ মামলায় ফের ধাক্কা খেল রাজ্য সরকার। নতুন করে টেট পরীক্ষা নেওয়ার নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট। D.El.Ed. উত্তীর্ণদের জন্য নতুন করে টেট পরীক্ষা নেওয়ার নির্দেশ সর্বোচ্চ আদালতের।

আগামী বছর ৩১ মার্চের মধ্যে পরীক্ষা নিতে হবে পশ্চিমবঙ্গ সরকারকে। নির্দেশ দিল বিচারপতি আব্দুর নাজির এবং বিচারপতি কৃষ্ণ মুরারির ডিভিশন বেঞ্চ। মামলাকারীদের বক্তব্য, ২০১৫ সালের পর থেকে থেকে এই রাজ্যে কোনও টেট পরীক্ষা হয়নি। এনসিটিই গাইডলাইন অনুযায়ী ন্যূনতম বছরে একবার পরীক্ষা নিতে হবে। তবে যারা ডি এলড পাস করেছেন, তাদের বায়সটাও মাথায় রাখা হোক, এই আবেদনও করা হয়।

টেট ২০১৭ নেওয়ার নোটিফিকেশন হয়েছিল ওই বছরই, ফর্ম ফিলাপ সেই সময়েই শেষ হয়ে যায়, কিন্তু পরীক্ষাটা আদতে হয় ২০২১ সালের জানুয়ারি মাসে। এর আগে ৩১ জানুয়ারি প্রাথমিকের টেট পরীক্ষায় বসার জন্য কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করেছিলেন 2018-20 D.EL.ED ব্যাচের বেশকিছু চাকরি প্রার্থী। কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজ 2018-20 D.EL.ED ব্যাচের মামলাকারী পরীক্ষার্থীদের পক্ষে রায় দেন।

তাদের বক্তব্য অনুযায়ী, ”যারা এই ৪ বছরের মধ্যে এলিজিবল হল তাদেরও পরীক্ষায় বসতে দেওয়া হোক কারণ পরীক্ষা না নেওয়াটা বোর্ডের ব্যর্থতা। হাইকোর্টে জাস্টিস রাজর্ষি ভরদ্বাজের সিঙ্গেল বেঞ্চ আমাদের জিতিয়ে অর্ডার দেন পরীক্ষায় বসার।

আমরা পরীক্ষা দিই কিন্তু তারপর বোর্ড ডিভিশন বেঞ্চে যায় এবং সৌমেন সেন ও সুগত ভট্টাচার্য এর ডিভিশন বেঞ্চ আমাদের হারিয়ে দেয়।” কিন্তু রাজ্য ডিভিশন বেঞ্চে গেলে রায় রাজ্যের পক্ষে যায়। এরপরই সুপ্রিম কোর্টের দারস্থ হন বেশকিছু পরীক্ষার্থী। সেই মামলারই রায় গেল চাকরিপ্রার্থীদের দিকে।