কোরানের পংক্তি বদলাবার আরজি খারিজ করল সুপ্রিম কোর্ট

খড়গপুর ২৪×৭: কোরানের কিছু পংক্তি বদলাবার আরজি খারিজ করে দিল সুপ্রিম কোর্ট। খারিজ করার পাশাপাশি ‘‘ছেঁদো’’ আরজি জানানোর জন্য আবেদনকারীকে ৫০,০০০ টাকার জরিমানা করে আদালত।

আবেদনকারী সায়েদ ওয়াসিম রিজভি, উত্তর প্রদেশের শিয়া ওয়াকফ বোর্ডের প্রাক্তন চেয়ারম্যান আদালতে আবেদন করে বলেন কোরানের ২৬টি পংক্তি মূল কোরানের অংশ নয়। আবেদনে তিনি জানান, সংশ্লিষ্ট পংক্তিগুলি দেশের আইনকে লঙ্ঘন করছে এবং যারা কোরানে বিশ্বাসী নন ও সাধারণ নাগরিকদের আক্রমণ করার ক্ষেত্রে পংক্তিগুলিকে ব্যবহার করা হচ্ছে ‘‘ন্যায্যতা’’ দেওয়ার জন্য।

বিষয়টিকে ‘‘সম্পূর্ণ ছেঁদো’’ হিসেবে উল্লেখ করে বিচারপতি রোহিংটন নরিম্যান বলেন, ‘‘আপনি সত্যিই পিটিশন দায়েরতে চান?’’।

পিটিশনে সায়েদ রিজভি আবেদন করেন সংশ্লিষ্ট পংক্তিগুলিকে ‘‘অসাংবিধানিক, অকার্যকরি’’ হিসেবে ঘোষণা করতে হবে।  তিনি উল্লেখ করেন, এই পংক্তিগুলির মাধ্যমে উগ্রপন্থা এবং সন্ত্রাসবাদ প্রচারিত হচ্ছে যা দেশের সার্বভৌমত্ব, একতা, ঐক্যবদ্ধতাকে ধ্বংস করছে।  তিনি আরও উল্লেখ করেন, মাদ্রাসাগুলিতে এই পংক্তিগুলি পড়ানোর ফলে, ‘‘সীমান্তে সন্ত্রাসবাদী কার্যলাপ বাড়ছে’’।

স্বাভাবিকভাবেই এই পিটিশনকে কেন্দ্র করে বিতর্ক, প্রতিবাদে নেমেছে অল ইন্ডিয়া শিয়া পার্সোনাল ল বোর্ড সহ অন্যান্য মুসলিম সংগঠনগুলি।  সায়েদ রিজভিকে কড়া সমালোচনার পাশাপাশি  কোরানকে ঘিরে বিভেদ সৃষ্টির অপচেষ্টার জন্যেও নিন্দা করা হয়েছে রিজভিকে।

‘‘কোরানের কোনো পংক্তিই হিংসায় উসকানি দেয় না,’’ জানান অল ইন্ডিয়া মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ডের সাধারণ সম্পাদক মৌলানা মাহমুদ দরিয়াবাদি।  একই সাথে সংখ্যালঘু জাতীয় কমিশনের পক্ষ থেকেও রিজভিকে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করার অভিযোগে অভিযুক্ত করে অবিলম্বে ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানানো হয়েছে।