Sunday, September 19, 2021
HomeনিউজExclusive: খড়গপুরে দুয়ারে সরকার শিবিরে, বিজেপির উপপ্রধানকে মারধরের করে তাড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ...

Exclusive: খড়গপুরে দুয়ারে সরকার শিবিরে, বিজেপির উপপ্রধানকে মারধরের করে তাড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে

- Advertisement -

খড়গপুর ২৪×৭ ডিজিটাল: রাজ্য সরকারের দুয়ারে সরকার শিবির থেকে বিজেপি পরিচালিত বড়কোলা গ্ৰাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধানকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার দুপুরে খড়গপুর গ্ৰামীণ থানার জফলা হাই স্কুলে।

যদিও এরকম কোনও ঘটনার খবর জানা নেই বলে জানিয়েছেন খড়গপুর গ্ৰামীণের বিধায়ক দিনেন রায়। তবে উপপ্রধানকে বের করে দেওয়ার ঘটনা স্বীকার করেছেন তৃণমূলের স্থানীয় এক নেতা। আর খড়গপুর এক নম্বর ব্লকের বিডিও দেবদত্ত চক্রবর্তী বলেছেন সামান্য ঘটনা। মিটে গিয়েছে। তবে ঘটনাটিকে কেন্দ্র করে এইদিন জফলা হাই স্কুল চত্বরে সাময়িক উত্তেজনা তৈরি হয়।

- Advertisement -

যদিও শিবিরে উপস্থিত পুলিশের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ছিল। জানা গিয়েছে এইদিন খড়গপুর এক নম্বর ব্লকের বড়কোলা গ্ৰাম পঞ্চায়েতে দুয়ারে সরকার শিবির প্রথম শুরু হয় খড়গপুর শহরের উপকণ্ঠে জফলা হাই স্কুল চত্বরে। শিবির শুরুর আগে সেখানে পৌঁছে ভেতরে চলে যান বিজেপি পরিচালিত বড়কোলা গ্ৰাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান স্বপন বেরা। তখন তাঁকে দেখতে পেয়ে সেখানে উপস্থিত তৃণমূলের কর্মীরা হইচই শুরু করে দেন।

দাবি জানাতে থাকেন উপপ্রধানকে বের করে দেওয়ার জন্য। সেই নিয়ে উত্তেজনা তৈরি হয়। তখন পরিস্থিতি বেগতিক দেখে উপপ্রধান স্বপন বেরা বিডিওর সাথে যোগাযোগ করেন। জানা গিয়েছে বিডিও তাঁকে বেরিয়ে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করেন। তখন একপ্রকার বাধ্য হয়ে শিবির ছেড়ে ফিরে যেতে হয় উপপ্রধানকে। আর এই ঘটনার কিছুক্ষণ পরেই সেখানে উপস্থিত হন বিধায়ক দিনেন রায়। তিনি বলেছেন ” আমার এরকম কোনও ঘটনার কথা জানা নেই।

আমি যখন গিয়েছি তখন কাতারে কাতারে মানুষ দুয়ারে সরকার শিবির থেকে উদ্দীপনার সাথে পরিষেবা নেওয়ার জন্য লাইনে দাঁড়িয়ে ছিলেন।” যদিও স্থানীয় তৃণমূল নেতা অজিত মহাপাত্র বলেছেন ” শিবিরের বাইরে এই গ্ৰাম পঞ্চায়েত মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি ও লোগো টাঙায় নি। বরং গ্ৰাম পঞ্চায়েতের নামে ফ্লেক্স লাগায়। আর এই উপপ্রধান এখানে অশান্তি করতে এসেছিলেন। গন্ডগোল করার চক্রান্ত করেছিলেন।

তাই বের করে দিয়েছি।”আর বিজেপি পরিচালিত বড়কোলা গ্ৰাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান স্বপন বেরা জানিয়েছেন ” আমি শিবিরের ভেতরে ঢোকার পরেই তৃণমূলের কর্মীরা অশান্তি শুরু করে। আমার উপর বেরিয়ে যাওয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করে। ফলে শেষ পর্যন্ত বাধ্য হয়ে বেরিয়ে যাই।” তবে শিবিরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি ও লোগো লাগানো ছিল বলে তিনি জানিয়েছেন।

শুধু এই ফ্লেক্সের নিচে সৌজন্যে বড়কোলা গ্ৰাম পঞ্চায়েত লেখা ছিল। তাতেই তৃণমূল ভয় পেয়ে যায়। তাঁদের মনে হয়েছে ভোটগুলি বোধহয় সব তৃণমূলের হাতছাড়া হয়ে গেল। আর বিডিও দেবদত্ত চক্রবর্তী বলেছেন ” সামান্য একটু গন্ডগোল হয়েছিল। পরে সেটা মিটে যায়। শিবির সফলভাবেই পরিচালিত হয়েছে ও শেষ হয়েছে।”

RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

error: Content is protected !!