বাংলায় রাষ্ট্রপতি শাসন চেয়ে, সুপ্রিম কোর্টে জনস্বার্থ মামলা

খড়গপুর ২৪×৭: বাংলায় রাষ্ট্রপতি শাসন চেয়ে সুপ্রিম কোর্টে জনস্বার্থ মামলা করলেন এক আইনজীবী। কেন্দ্রীয় সরকারকে নির্দেশ দিক সুপ্রিম কোর্ট। সর্বোচ্চ আদালতে এমনই আবেদন জানিয়েছেন আইনজীবী ঘনশ্যাম উপাধ্যায়। বাংলায় নির্বাচন পরবর্তী হিংসা চলছে, এই অভিযোগ তুলে আবেদনে বলা হয়েছে, কেন্দ্রকে ৩৫৬ ধারা প্রয়োগের নির্দেশের পাশাপাশি আদালত যেন একটি বিশেষ তদন্তকারী দল (সিট) গঠন করে। ইতিমধ্যেই বাংলায় ১৬ জন বিজেপি কর্মী, সমর্থকের মৃত্যু হয়েছে। এমনটাই দাবি করেন ওই আইনজীবী।

বিধানসভা নির্বাচনের আগে থেকেই রাজ্য বিজেপি নেতাদের কেউ কেউ বাংলায় রাষ্ট্রপতি শাসনের দাবি জানিয়েছিলেন। ভোট পরবর্তী হিংসা এবং সম্প্রতি নারদ কাণ্ডে রাজ্যের ২ মন্ত্রী-সহ ৪ জনের গ্রেফতার ও তার পরবর্তী ঘটনাক্রম নিয়ে রাষ্ট্রপতি শাসনের সম্ভাবনা নিয়ে জল্পনা তৈরি হয়েছে। এরই মধ্যে সুপ্রিম কোর্টে এমন একটি আবেদন জমা পড়েছে বলে জানিয়েছে আইন সংক্রান্ত খবরের ওয়েবসাইট ‘বার অ্যান্ড বেঞ্চ’।

আবেদনকারী আদালতকে জানিয়েছেন, পশ্চিমবঙ্গে আইনের শাসন নেই। তৃণমূল সরকার সাধারণ মানুষের জীবন, সম্পত্তি ও স্বাধীনতা রক্ষায় ব্যর্থ দাবি করার পাশাপাশি ঘনশ্যামের বক্তব্য, ‘যাঁরা বিজেপি-কে ভোট দিয়েছিলেন তাঁরাই বেশি আক্রান্ত। শাসক দলের অত্যাচারের ফলে বাংলার যে অবস্থা তাতে আদালতের কেন হস্তক্ষেপ করা উচিত।‘ ঘনশ্যাম সুপ্রিম কোর্টকে পিটিশনে জানিয়েছেন, ভারতে যেন ‘তালিবান’ শাসিত হয়ে না যায়।

এদিকে, ধৃত চার নেতা-মন্ত্রীর জামিনে স্থগিতাদেশের পুনর্বিবেচনার আর্জি মামলার মধ্যেই সিবিআইয়ের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের হল গড়িয়াহাট থানায়। বুধবার ভারতীয় দণ্ডবিধিন ১৬৬, ১৬৬এ, ১৮৮ এবং ৩৪ নম্বর ধারায় মামলা দায়ের হয়েছে। একইসঙ্গে বিপর্যয় মোকাবিলা আইনেও এফআইআর দায়ের হয়েছে।