হাইকোর্টের নির্দেশে স্থগিত উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া

নিজস্ব সংবাদদাতা: পরীক্ষায় নম্বর বেশি পাওয়া সত্ত্বেও নাম নেই ২১ জুন প্রকাশিত মেধা তালিকায়। এমনকি তালিকায় প্রকাশিত প্রার্থীদের পাশে দেওয়া ছিলনা তাদের প্রাপ্ত নম্বর। শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়ায় চূড়ান্ত দুর্নীতি ও অস্বচ্ছতার অভিযোগ নিয়েই হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন চাকরি প্রার্থীরা। আর সেই মামলার জেরেই ফের আটকে গেল উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া। অন্তর্বর্তীকালীন স্থগিতাদেশ দেওয়া হল ইন্টারভিউ প্রক্রিয়াতেও।

 

বুধবার কলকাতা হাইকোর্টে এই মামলার শুনানিতে নিয়োগ প্রক্রিয়ায় স্থগিতাদেশ দেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। আগামী শুক্রবার অর্থ্যাৎ ২ জুলাই ফের হাইকোর্টে এই মামলার পরবর্তী শুনানি রয়েছে।

এর আগেও দুর্নীতির অভিযোগের কারনে হাইকোর্টের নির্দেশে আটকে ছিল এই নিয়োগ প্রক্রিয়া। সম্প্রতি, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘোষণার পর গত ২১ জুন উচ্চ প্রাথমিকের ইন্টারভিউ তালিকা প্রকাশ করে স্কুল সার্ভিস কমিশন।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ১০ শতাংশ পার্শ্বশিক্ষক সংরক্ষণ বাদ দিয়ে মোট ১৪ হাজার ৩৩৯ টি শূন্যপদে নিয়োগ হবে। নিয়োগ প্রক্রিয়ায় এত অসঙ্গতি যে যোগ্য প্রার্থীরা আজ চাকরি না পেয়ে আদালতের দ্বারস্থ হয়।