বিজেপি কর্মীদের মারধর-গাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ, উত্তপ্ত বীরভূমের ইলামবাজার

খড়গপুর ২৪×৭:  মারধর-গাড়ি ভাঙচুর, বাদ গেল না কিছুই নেই! যেদিন বীরভূমে পা রাখলেন দলের সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা, সেদিনই ‘হামলা’র মুখে পড়়লেন বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা। প্রতিবাদে থানা ঘেরাও করে চলল বিক্ষোভ। ভোটের আগে উত্তপ্ত ইলামবাজার।

২৯ এপ্রিল, অষ্টম দফায় ভোট বোলপুর বিধানসভাকেন্দ্রে। এদিন ইলামবাজারের ঘুড়িষা গ্রামে প্রচার কর্মসূচি ছিল বিজেপি প্রার্থী অনির্বাণ গঙ্গোপাধ্যায়ের। অভিযোগ, প্রচার শুরু আগেই দলের বেশ কয়েকটি গাড়িতে ভাঙচুর করা হয়। রেহাই পাননি দলের কর্মী-সমর্থকরাও। তাঁদের বেধড়ক মারধর করে দুষ্কৃতীরা। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করেই অশান্তি ছড়ায় এলাকায়। ইলামবাজার থানা ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা। দাবি একটাই, অবিলম্বে দোষীদের গ্রেফতার করতে হবে।

দোষী কারা? বিজেপির দাবি, শেষবেলায় এলাকায় প্রচারে ব্যস্ত প্রার্থী অনির্বাণ গঙ্গোপাধ্যায়। জেলায় এসেছেন দলের সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। ভয় দেখানোর জন্যই কর্মীদের মারধর করেছে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। ভাঙচুর চালানো হয়েছে প্রচার গাড়িতেও। যদিও যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল। শাসকদলের পাল্টা দাবি, ‘এটা বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব। এর সাথে আমরা কোনওভাবেই জড়িত নই। মিথ্যা বদনাম করে এলাকায় উত্তেজনা ছড়ানোর চেষ্টা চলছে’। তদন্তে নেমেছে পুলিশ।