মনিরুলকে কোমরে দড়ি বেঁধে ঘুরিয়েছিলাম, লাভপুরের বিদায়ী বিধায়ককে নিশানা করলেন ডেবরার তৃণমূল প্রার্থী হুমায়ুন কবিরের

খড়গপুর ২৪×৭: একসময় তৃণমূলের প্রতাপশালী নেতা। দলে ববিবনা না হওয়ায় সেখান থেকে বিজেপিতে। এবার গেরুয়া শিবির থেকে টিকিট না পেয়ে বীরভূমের লাভপুরে নির্দল হিসেবে লড়াই করছেন মনিরুল ইসলাম। মঙ্গলবার আমোদপুরে প্রচারে এসে সেই মনিরুলকে নিশানা করলেন ডেবরার তৃণমূল প্রার্থী হুমায়ুন কবির।

লাভপুরে মনিরুল খুব একটা দুর্বল প্রার্থী নয়। এমনটাই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। তৃণমূলকে বেশ বেগ দিতে পারেন বলেও মনে করা হচ্ছে।
রাজ্যের প্রাক্তন আইপিএস হুমায়ুন কবির আমোদপুরের সভায় আজ বলেন, মনিরুল ইসলাম একটা ক্রিমিন্যাল। ওকে আমি ধরেছিলাম। প্রচুর অস্ত্র উদ্ধার হয়েছিল। স্বীকারও করেছিল অনেক কিছু। কোমরে দড়ি দিয়ে ঘুরিয়েছিলাম। ও নিজেই বলে, পায়ের তলে ৩ জনকে পিষে মেরেছে ৷ মানুষ ২৯ তারিখে বুঝিয়ে দেবে৷

এনিয়ে মনিরুল ইসলাম বলেন, আমি ২০১০ সালে একবার গ্রেফতার হয়েছিলাম। তখন হুমায়ুন কবির এসপি ছিলেন। আর আমাকে বামেরা ফাঁসিয়েছিল। লাভপুরের বুকে আমাকে কোমরে দড়ি বেঁধে ঘোরানোর কথা আমার বা লাভপুরের মানুষের জানা নেই।  যতই হুমায়ুন কবির প্রচারে আসুক,  তৃণমূল লাভপুরে এবার স্বাধীনতার ইতিহাসের পর সর্বোচ্চ ভোটে হারবে।

বীরভূমের ফলাফল নিয়ে হুমায়ুন কবির বলেন,  ১-২ সিটের বেশি বিজেপি পাবে না৷  পাশাপাশি গতকাল বীরভূমে ভারতী ঘোষ এর উপর আক্রমনের ঘটনায় তিনি নিন্দা করেন তিনি। বলেন, গ্রামের মানুষ এমনি কিছু করে না। কোনও উস্কানিমূলক বক্তব্য ভারতী রেখেছিলেন কিনা দেখা দরকার ৷