Sunday, September 26, 2021
Homeজেলাঝাড়গ্রামবিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক, ৯ মাস পর গ্রামে ফিরে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা প্রেমিক-প্রেমিকার,চাঞ্চল্য...

বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক, ৯ মাস পর গ্রামে ফিরে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা প্রেমিক-প্রেমিকার,চাঞ্চল্য গোপীবল্লভপুরে

- Advertisement -

খড়গপুর ২৪×৭ ডিজিটাল: ৯ মাস পর গ্রামে ফিরে এসে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করল প্রেমিক-প্রেমিকা। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যে এলাকায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। বুধবার ঘটনাটি ঘটেছে ঝাড়গ্রাম জেলার গোপীবল্লভপুর থানার বংশীধর পুর গ্রামে। মৃত দুইজনের নাম ধীরেন ডাঙ্গুয়া ও অঞ্জলি সিং। দুজনেরই বাড়ি গোপীবল্লভপুর থানার বংশীধর পুর গ্রামে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রায় ৯ মাস আগে ধীরেন ডাঙ্গুয়া তার স্ত্রী ও তিন ছেলে মেয়েকে ছেড়ে গ্রামেরই এক গৃহবধূ অঞ্জলি সিংকে নিয়ে গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে যায়। অঞ্জলি সিংয়ের স্বামী অনন্ত সিং সহ দুই মেয়ে ও এক ছেলে রয়েছে। সেই সময় তাদের খোঁজ করে কোথাও পাওয়া যায়নি। নয় মাস পর বুধবার সকালে বংশীধর পুর গ্রামের মাঝে থাকা বড়খাল এলাকায় একটি নিমগাছে ওই দুজনের দেহ ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায় স্থানীয় বাসিন্দারা।

- Advertisement -

ঘটনার পর এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। মৃত ধীরেন ডাঙ্গুয়ার স্ত্রী যমুনা ডাঙ্গুয়া বলেন” ৯ মাস আগে ঘর ছেড়ে চলে গিয়েছিল আমার স্বামী,আমি ছেলে মেয়েকে নিয়ে দিনমজুর খেটে সংসার চালাচ্ছি। একদিন ও বাড়ি ফিরে আসেনি। স্থানীয়দের মুখে শুনে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখি আমার স্বামী গলায় দড়ি দিয়ে ঝুলছে ।

একই কথা বলেন অঞ্জলি সিংয়ের স্বামী অনন্ত সিং, তিনি বলেন ৯ মাস আগে ধীরেন ডাঙ্গুয়ার সাথে ও বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। দুই মেয়ে এক ছেলেকে নিয়ে আমি কোনোক্রমে সংসার চালাচ্ছি। বহু চেষ্টা করেও ওদের খোঁজ পায়নি। বুধবার সকালে লোকমুখে শুনে গিয়ে দেখি দুইজনেই গলায় ফাঁস লাগিয়ে নিম গাছে ঝুলছে।

এদিকে এই ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় গোপীবল্লভপুর থানার পুলিশ। ঘটনাস্থলে গিয়ে দুইজনের ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঝাড়গ্রাম সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। সেই সঙ্গে ঠিক কি কারণে ওই ঘটনা ঘটেছে তা খতিয়ে দেখার জন্য গোপীবল্লভপুর থানার পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

error: Content is protected !!