মাসিক কিস্তি আদায়ের নামে শ্রমিককে হেনস্তার অভিযোগ উঠল বেসরকারি আর্থিক সংস্থার এজেন্টদের বিরুদ্ধে, অপমানে আত্মঘাতী শ্রমিক

KGP 24X7: মাসিক কিস্তি আদায়ের নামে নিকাশি শ্রমিককে হেনস্তার অভিযোগ উঠল বেসরকারি আর্থিক সংস্থার এজেন্টদের বিরুদ্ধে। অপমানে আত্মঘাতী শ্রমি। মুর্শিদাবাদের বিন্দুপাড়ার ঘটনা। ৬,৮০০ টাকা বকেয়া না মেটালে তাকে ‘ছাড়া’ হবে না বলে ‘হুঁশিয়ারি’ দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে ওই এজেন্টদের বিরুদ্ধে। অপমানিত হয়ে ঘরবন্দি করে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেন ওই শ্রমিক। সাধন সিনহা (৪০) নামক ওই শ্রমিক গত জানুয়ারি মাসে ১ লক্ষ টাকা ঋণ নিয়ে বাইক কেনেন।

নিয়মিত কিস্তি শোধ করলেও গত মে-জুন মাসের কিস্তি বকেয়া পড়ে যাওয়ায় মঙ্গলবার তার বাড়িতে হানা দেয় এজেন্টরা। তাঁর বড় ছেলে জানিয়েছে তাঁর মাসিক আয় ১৫ থেকে ২০,০০০ এর মধ্যে হলেও লকডাউনে তার আয় একেবারেই বন্ধ হয়ে যায়৷ তিনি বাইক কেনেন যাতে আরো বেশি বেশি কাজ করতে পারেন সেই আশায়। যদিও তাতে জল ঢেলে দেয় লকডাউন।

এই পরিস্থিতিতে গত মে-জুন মাস মিলিয়ে মোট ৬,৮০০ টাকা বকেয়া পড়ে যায়। মঙ্গলবার তাঁর বাড়িতে উপস্থিত হয় এজেন্টরা। তাকে হেনস্তা করা হয় বলে অভিযোগ তাঁর স্ত্রীর। তাদের পড়শিরাও জানিয়েছেন এলাকায় সজ্জন ব্যক্তি হিসেবেই পরিচিত তিনি। ওই ঋণ সংস্থার এজেন্টদের বক্রোক্তি সহ্য করতে না পেরেই দরজা বন্ধ করে আত্মহত্যার পথ বেছে নেন বলে অভিমত পড়শিদের।

প্যান্ডেমিক পরিস্থিতিতে ঋণ সংক্রান্ত নয়া নিয়মকানুন আরবিআই জারি করলেও কার্যক্ষেত্রে তা যে কোনো কাজের নয় তা আবারও প্রমাণিত হল এই ঘটনায়৷

এই ঘটনায় এখনো পর্যন্ত কোনো অভিযোগ দায়ের করা হয়নি পরিবারের তরফে।