বিজেপি কর্মীর মৃতদেহ উদ্ধার,বিজেপি করার অপরাধে খুন দাবি পরিবারে

খড়গপুর ২৪×৭: নদিয়ার শিমুরালিতে নিখোঁজ বিজেপি কর্মীর দেহ পাওয়া গেল বাড়ি থেকে ঢিল ছোঁড়া দূরত্বে। ঐ বিজেপি কর্মীর নাম দিলীপ কীর্তনিয়া। ঘটনার প্রতিবাদে ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করেন ক্ষুব্ধ বিজেপি কর্মীরা। এলাকায় উত্তেজনা ছড়ায়।

দিলীপের পরিবারের দাবি, তাঁকে খুন করেছে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। রাত থেকেই তিনি নিখোঁজ ছিলেন। পরিবারের তরফ থেকে এমনটাই জানা গিয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, সকাল বেলায় বাড়ির কাছেই তাঁর দেহ পড়ে থাকতে দেখা যায়। সঙ্গে সঙ্গে এলাকাবাসী দ্রুত তাঁকে চাকদহ হাসপাতালে নিয়ে যান স্থানীয়রা। সেখানেই তাঁকে মৃত হিসাবে ঘোষণা করেন চিকিৎসক। তবে কী কারণে মৃত্যু, তা এখনও স্পষ্ট নয়। ময়নাতদন্তে নিয়ে যাওয়া হয়েছে দিলীপের দেহ।

দিলীপের পরিবারের দাবি, বেশ কিছুদিন যাবৎ তাঁকে ফোনে হুমকি দেওয়া হচ্ছিল। তাঁদের ধারণা, তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরাই রয়েছে এই ঘটনার পিছনে। যদিও তৃণমূল এই ঘটনার দায় সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছে। ঘটনার প্রতিবাদে ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করা হয়। টায়ার জ্বালিয়ে প্রতিবাদ করেন স্থানীয় বাসিন্দারা। ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিস, মৃত্যুর কারণ খতিয়ে দেখা হচ্ছে।