২৪ ঘন্টা ধরে পড়ে রইল দুই করোনা রোগীর দেহ, উদাসীন প্রশাসন

খড়গপুর ২৪×৭: কৃষ্ণনগরের উকিলপাড়া ও শক্তিনগরে কোভিড আক্রান্ত দুই ব্যক্তি বাড়িতে মারা যাওয়ার ২৪ঘন্টা পার হয়ে যায়। কিন্তু তাঁদের সৎকারের ব্যবস্থা করতে কোনও তৎপরতা দেখায়নি জেলা প্রশাসন।

এই ঘটনায় ক্ষুব্ধ ও আতঙ্কিত কৃষ্ণনগরবাসী। উকিলপাড়া এলাকার বাসিন্দা সম্রাট ভাদুড়ি জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার আনুমানিক রাত সাড়ে ৯টা নাগাদ গৌতম পাল চৌধুরি (৬০) কোভিডে আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছেন বলে তাঁরা জানতে পারেন। তাঁর স্ত্রী ও এক মেয়ে কোভিডে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি। বিষয়টি জেলা প্রশাসনকে জানানোর পরও কোনও ব্যবস্থা হয়নি। ইতিমধ্যে মৃতদেহে পচন শুরু হয়ে গেছে। বাধ্য হয়ে সংবাদমাধ্যেমের কাছে তিনি সাহায্যের আবেদন জানান।

অন্যদিকে ওই দিনই শক্তিনগরে বিপ্লব সাহা নামে ৬৫ বছরেরে বৃদ্ধ কোভিড আক্রান্ত হয়ে বাড়িতে মারা যান। গত ১৯ এপ্রিল তাঁর কোভিড টেস্ট হয়। ‌র‌্যাপিড এন্টিজেন টেস্ট এ জানা যায় তিনি করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন। জেলা শহরের দুই প্রান্তে দুটি কোভিড আক্রান্ত রোগী ২৪ঘন্টা ধরে মৃত অবস্থায় পড়ে রয়েছে, প্রশাসন নির্বিকার। কৃষ্ণনগরের মহকুমাশাসক চিত্রদ্বীপ সেন জানান, বিষয়টি প্রশাসনের নজরে আসা মাত্রই আমরা ব্যবস্থা গ্রহণের উদ্যোগ নিয়েছি। বৃহস্পতিবার নির্বাচন থাকায় একটু সমস্যা হয়ে গেছে। যদিও বাসিন্দাদের অভিযোগ মারা যাবার খবর প্রশাসনকে রাতেই জানানো হয়েছিল। তবুও কোনও উদ্যোগ নেয়নি।