Thursday, December 2, 2021
Homeজেলাপশ্চিম মেদিনীপুরখড়গপুর শহরের রাজগ্রাম-গোকুলপুর যাওয়ার রাস্তার বেহাল অবস্থা,ক্ষোভ এলাকাবাসীর
Advertisement

খড়গপুর শহরের রাজগ্রাম-গোকুলপুর যাওয়ার রাস্তার বেহাল অবস্থা,ক্ষোভ এলাকাবাসীর

Advertisement

Advertisement

খড়গপুর ২৪×৭ ডিজিটাল: রাস্তা তো নয়। যেন মূর্তিমান বিভীষিকা। সদ্য প্রাকৃতিক দুর্যোগে বিপর্যস্ত উত্তরাখণ্ডের রাস্তারও মনে হয় এরকম বেহাল দশা হয় নি। যেরকম হয়ে রয়েছে খড়গপুর শহরের রাজগ্ৰাম রেলগেট থেকে খড়গপুর গ্ৰামীণ থানার গোকুলপুর যাওয়ার রাস্তাটি।

- Advertisement -
Advertisement
- Advertisement -

খড়গপুর মেদিনীপুর রেলশাখার রেললাইন বরাবর এই রাস্তাটি সোজা গোকুলপুরে গিয়ে মিশেছে। রেলের অধীনে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এই রাস্তা দিয়ে ছয় নম্বর জাতীয় সড়ক ধরে খুব অল্প সময়ে মেদিনীপুর শহরে পৌঁছে যাওয়া যায়। শুধু তাই নয় কৃষি অধ্যূষিত গোকুলপুর এলাকা থেকে প্রতিদিন বহু সবজি বিক্রেতা এই রাস্তা ধরে যাতায়াত করে খড়গপুর শহরের খরিদা বাজার থেকে শুরু করে গোলবাজার সহ নয়াবাজার ও মালঞ্চ বাজারে আসেন।

এছাড়া খড়গপুর থেকেও বহু মানুষকে খড়গপুর শিল্পতালুকে অবস্থিত কারখানাগুলিতে কাজ করার জন্য নিয়মিত যাতায়াত করতে হয়। পাশাপাশি গোকুলপুর থেকেও অনেক মানুষকে এই রাস্তা দিয়ে খড়গপুর শহরে নানা কাজে আসতে হয়। তারমধ্যে কিছু রেলকর্মীও রয়েছেন। ফলে খড়গপুর শহরের একাংশের সাথে গোকুলপুর ও মেদিনীপুর শহরে সরাসরি যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম এই রাস্তাটি।

অথচ পিচ পড়া তো দূরাস্ত। সামান্য ঢালাইয়ের কাজ কোনদিন এই রাস্তায় হয় নি। যদিও এলাকার বাসিন্দাদের দাবি অবিলম্বে রাস্তাটি সংস্কার করা হোক। গোটা রাস্তাটি অজস্র খানাখন্দে ভরে রয়েছে। রাস্তার মাঝখানে বড় বড় গর্ত তৈরি হয়েছে। স্বাভাবিক সময়ে যাতায়াত করতে নাভিশ্বাস উঠে। আর বর্ষাকালে পরিস্থিতি আরও ভয়ংকর আকার ধারন করে।

বড় বড় গর্তগুলিতে জল জমে পুকুরের আকার ধারন করে। প্রতিদিন এই রাস্তায় দুর্ঘটনা ঘটে। এমনকি এই রাস্তা এড়াবার জন্য অনেকে রাস্তার পাশে রেললাইনের ওপর দিয়ে যাতায়াত করতে বাধ্য হয়। এদিকে এলাকার বাসিন্দাদের দাবি থাকলেও রেল ও পুরসভার গুঁতোগুঁতিতে রাস্তা সংস্কারের কাজ আজও বিশ বাঁও জলে।

এদিকে এই রাস্তা সংস্কারের দাবিতে মাস দুয়েক আগে এলাকার বাসিন্দারা একটি গণ পিটিশন খড়গপুর শহরের তারকা বিধায়ক হিরণের কাছে জমা দিয়েছেন বলে জানালেন। যদিও বিধায়ক হিরণ জানিয়েছেন এরকম কোনও পিটিশন তিনি পাননি।

কিন্তু রেললাইনের ওপর পারে পুরসভার নয় নম্বর ওয়ার্ডের সাঁতরা পাড়ার বাসিন্দা সুবীর সাঁতরা জানিয়েছেন এই রাস্তাটি সংস্কারের জন্য বিধায়ক হিরণের বাসভবনে গিয়ে পিটিশন দিয়ে এসেছেন। অপরদিকে রাস্তাটির বেহাল দশা ও গুরুত্ব স্বীকার করে খড়গপুর পুরসভার চেয়ারপারসন প্রদীপ সরকার বলেছেন ” রাস্তাটি সংস্কারের জন্য রেলকে একাধিকবার অনুরোধ করা হয়েছে।

চিঠি দেওয়া হয়েছে মেদিনীপুর খড়গপুর উন্নয়ন পর্ষদকে।” এমনকি রাস্তাটি সংস্কারের জন্য রশ্মি মেটালিক্স কারখানা কর্তৃপক্ষের কাছে অনুরোধ করা হয়েছে বলে তিনি জানালেন। তবে এই ব্যাপারে মেদিনীপুর খড়গপুর উন্নয়ন পর্ষদের চেয়ারম্যান তথা খড়গপুর গ্ৰামীণের বিধায়ক দীনেন রায় জানিয়েছেন ” এই রাস্তাটি রেলের। যা করার রেলকেই করতে হবে। মেদিনীপুর খড়গপুর উন্নয়ন পর্ষদের এই ব্যাপারে কিছু করার নেই।”

তবে তিনি জানিয়েছেন এই রাস্তাটি সংস্কারের জন্য রেলকে তিনিও বার কয়েক চিঠি দিয়েছেন। কিন্তু রেল এই ব্যাপারে কোনও উচ্চবাচ্য না করছে বলে না বলে তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। এদিকে এই ব্যাপারে রেলের কোনও বক্তব্য পাওয়া যায় নি। রেলের খড়গপুর ডিভিশনের সিনিয়র ডিসিএম তথা জনসংযোগ আধিকারিক গজরাজ সিং চরনকে বারবার ফোন করা হলেও তিনি ফোন ধরেন নি।

Advertisement

RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

error: Content is protected !!