Thursday, December 2, 2021
Homeজেলাপশ্চিম মেদিনীপুরখড়গপুরে ৪০ ফুটের কালী পুজোর মন্ডপে ডোকরা শিল্প ফুটিয়ে তুলেছেন শিল্পী
Advertisement

খড়গপুরে ৪০ ফুটের কালী পুজোর মন্ডপে ডোকরা শিল্প ফুটিয়ে তুলেছেন শিল্পী

Advertisement

Advertisement

খড়গপুর ২৪×৭ ডিজিটাল: হারিয়ে যেতে বসেছে বাঁকুড়া জেলার বিষ্ণুপুরের ডোকরা শিল্প। আর এই ডোকরা শিল্পের কারুকার্য এবারে নিয়ে আসা হয়েছে খড়গপুর শহরের ঝাপেটাপুর এলাকার টুয়েন্টি সেভেনথ ইয়ুথ সেন্টারের পুজো মন্ডপে।

- Advertisement -
Advertisement
- Advertisement -

আর এবারের কালীপুজোয় এটাই চমক এই পুজো কমিটির।  খড়গপুর পুরসভার প্রাক্তন পুরপ্রধান রবিশংকর পান্ডে এই পুজোর মূল কান্ডারী। এবারে ২৬ বছরে পা দিয়েছে এই পুজোটি। গতবারে করোনা পরিস্থিতির কারণে রজত জয়ন্তী বর্ষ পালন করতে পারে নি।

তাই এবারে রজত জয়ন্তী বর্ষ উদযাপন করা হচ্ছে। এই কালীপুজোর গোটা মন্ডপ জুড়ে রয়েছে ডোকরা শিল্পের অপূর্ব কারুকার্য। মন্ডপে ঢোকার আগে নজরে পড়বে একটি গরুর গাড়িতে নহবত বসেছে। সানাই, ঢোল, বাঁশি বাজাচ্ছেন শিল্পীরা। গরুর গাড়ির মধ্যে রয়েছে হারিয়ে যাওয়া লন্ঠন।

দেখতে পাওয়া যাবে দুলায়মান ঘন্টা। এছাড়া গোটা মন্ডপ জুড়ে রয়েছে শিল্পী যামিনী রায়ের আঁকা বিভিন্ন চিত্র। যেগুলি এই ডোকরা শিল্পের মাধ্যমে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। গোটা মন্ডপ সজ্জা করেছেন হলদিয়ার শিল্পী চন্দন মাইতি। তিনি জানিয়েছেন এই শিল্প ফুটিয়ে তোলা হয়েছে বাঁশ, পোড়া মাটি, রং ও একধরনের শিট দিয়ে।

তিনি জানিয়েছেন এই শিল্পটি তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে। ৪০ ফুট উচ্চতার এই মন্ডপে প্রতিমা সাবেকি। অপরদিকে এই পুজো কমিটির মূল কান্ডারী রবিশংকর পান্ডে জানিয়েছেন করোনা বিধিনিষেধ কঠোরভাবে পালন করা হবে। ভিড় নিয়ন্ত্রণের সমস্ত রকমের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

একসাথে বহু দর্শক মন্ডপে প্রতিমা দর্শনের জন্য প্রবেশ করতে পারবেন না। তিনি জানিয়েছেন মোট বাজেট প্রায় সাড়ে নয় লক্ষ টাকা। এবারে এই কালীপুজো ২৬ বছরে পা দিয়েছে বলে তিনি জানালেন।

Advertisement

RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

error: Content is protected !!