Thursday, December 2, 2021
Homeজেলাপশ্চিম মেদিনীপুরGhatal: জেসিবি মেশিন দিয়ে নদীর চরে মাটি চুরির অভিযোগ, গ্রামবাসীদের বিক্ষোভের মুখে...
Advertisement

Ghatal: জেসিবি মেশিন দিয়ে নদীর চরে মাটি চুরির অভিযোগ, গ্রামবাসীদের বিক্ষোভের মুখে পড়ে পিছু হটল ঠিকাদারি সংস্থা

Advertisement

Advertisement

খড়গপুর ২৪×৭ ডিজিটাল: জেসিবি মেশিন দিয়ে নদীর চরের মাটি চুরির অভিযোগ। মাটি কাটার ফলে দেখা দেবে নদী ভাঙ্গন। তাই নদী ভাঙন আতঙ্কে ভুগছে ঘাটাল ব্লক এর নদী তীরবর্তী এলাকার মানুষজন। আর জেসিবি মেশিন দিয়ে মাটি চুরির অভিযোগ ঘিরে চরম উত্তেজনা,এলাকায় কাজ বন্ধ করে আটকে রাখা হলো গাড়ি গুলিকে।

- Advertisement -
Advertisement
- Advertisement -

গ্রামবাসীদের বিক্ষোভের মুখে পড়ে পিছু হটে ঠিকাদারি সংস্থা। ঘটনা পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার ঘাটাল পৌরসভার ১৭ নাম্বার ওয়ার্ডের কুশপাতা এলাকায়।
এলাকার মানুষজনদের অভিযোগ শিলাবতী নদীর তীরে বরাবর বহু পরিবার বসবাস করে। কিন্তু দিন কয়েক ধরে জেসিবি মেশিন দিয়ে শিলাবতী পাড় লাগোয়া চড় থেকে জেসিবি মেশিন দিয়ে মাটি কেটে অন্যত্রে পাচার হয়ে যাচ্ছে। কিন্তু গ্রামের মানুষজন মাটি কাটা বন্ধের দাবি তুললেও বন্ধ করেনি ওই ঠিকাদারি সংস্থা মাটি কাটার কাজ। আর এতেই দেখা দেয় চরম ক্ষোভ।

আজ সকাল নাগাদ আবার জেসিবি মেশিন দিয়ে সেখান থেকে মাটি তুলতে আসে ঠিকা কর্মীরা, এলাকাবাসী বাধা দেয়। এলাকার মানুষজনদের অভিযোগ এইভাবে প্রতিনিয়ত মাটি কেটে অন্যত্র চলে যাওয়ার ফলে শিলাবতী নদীর তীরবর্তী যে পাড় তার দুর্বল হচ্ছে নদীর জল বাড়লে পাড় ধসে বাড়িঘর তলিয়ে যাবে বলে তারা আশঙ্কা করছে। তাই এলাকাবাসী চাইছেন এই মাটি তোলা বন্ধ হোক।

যদিও বিক্ষোভের মুখে পড়ে ঠিকাদারি সংস্থা পিছু হটে, মাটিকাটা আপাতত বন্ধ করে। ঠিকাদারি সংস্থার দাবি তারা সেচ দপ্তরের অনুমতি নিয়েই এখান থেকে মাটি নিয়ে অন্যত্র নদী পাড় মেরামতের কাজ শুরু করেছে।
আর এলাকার মানুষজনদের অভিযোগ তারা বলছেন যে কখনও সেচ দপ্তর এইভাবে মাটি কাটার অনুমতি দিতে পারে না।

তার কারণ এই ভাবে মাটি কাটলে যে কোন মুহূর্তে নদীর জলে বাড়িঘর তলিয়ে যাবে। এক কথায় মাটি অন্যত্র চুরি হওয়ার ফলে আতঙ্কে ভুগছে এলাকার মানুষজন যদি এ বিষয়ে কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি সেচ দপ্তরের।

Advertisement

RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

error: Content is protected !!