Sunday, September 26, 2021
Homeজেলাপশ্চিম মেদিনীপুরপিংলায় তৃণমূলের ব্লক সভাপতিকে অপসারণের দাবিতে বিক্ষোভ কর্মীদের।

পিংলায় তৃণমূলের ব্লক সভাপতিকে অপসারণের দাবিতে বিক্ষোভ কর্মীদের।

- Advertisement -

খড়গপুর ২৪×৭(পিংলা,প:মেদিনীপুর):-এবারে বিদ্রোহের আগুন পিংলায়। বিজেপির হাত শক্তিশালী করার অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের পিংলা ব্লক সভাপতি তথা জেলা পরিষদের সদস্য সেক সবেরতির বিরুদ্ধে। আর এই অভিযোগ তুলে সবেরতি সাহেবকে এবারে দলের ব্লক সভাপতির পদ থেকে অপসারণের দাবি করলেন তৃণমূলের একাংশ নেতা ও কর্মীরা। পাশাপাশি তাঁর পদত্যাগের দাবিতেও অনেকেই সোচ্চার হয়েছেন। আর এই দাবি কোনও রুদ্ধদ্বার বৈঠকে ওঠে নি। একেবারে প্রকাশ্যে মিছিল করে এই দাবি করা হয়েছে। এই দাবিতে গত তিনদিন ধরে লাগাতার পিংলা থানার ক্ষীরাই অঞ্চলে দলীয় পতাকা হাতে নিয়ে তৃণমূলের একাংশ নেতা ও কর্মীরা মিছিল করেছেন। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তৃণমূলের পিংলা ব্লক সভাপতি তথা জেলা পরিষদ সদস্য সেক সবেরতি। তবে গোটা ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। এই ব্যাপারে বিদ্রোহীদের পক্ষে পিংলা ব্লক তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক জয়দেব সেনী বলেছেন অবিলম্বে দলের ব্লক সভাপতি সেখ সবেরতিকে সরাতে হবে।

তা না হলে গোটা ব্লকে দলকে রক্ষা করা কঠিন কাজ হবে। তাঁর অভিযোগ সবেরতি সাহেবের কাজে দলের কোনও উপকার হচ্ছে না। তিনি নিজের মর্জিমাফিক চলছেন। আর এতে বিজেপির হাত শক্তিশালী হচ্ছে। তবে তিনি এখানেই থামেন নি। তাঁর আরও অভিযোগ দলকে শক্তিশালী করার কাজ করার পরেও কয়েকদিন আগে হঠাৎ করে কারোর সাথে কোনও আলোচনা না করে সবেরতি সাহেব দলের ক্ষীরাই অঞ্চলের সভাপতি সেখ রশিদকে সরিয়ে দেন। পরিবর্তে সভাপতি করা হয় জনভিত্তিহীন স্বপন মন্ডলকে। তিনি আরও বলেন গত বছরে লোকসভা নির্বাচনের ফল বেরোনোর পর গোটা ক্ষীরাই অঞ্চল সহ ব্লকের বিভিন্ন এলাকায় বিজেপির সন্ত্রাস নেমে আসে। সেইসময় বিপর্যস্ত দল ও আক্রান্ত কর্মীদের পাশে দাঁড়িয়ে সামনে থেকে নেতৃত্ব না দিয়ে অসুস্থতার দোহাই দিয়ে চেন্নাই পালিয়ে যান। আর সেইসময় পরিস্থিতি সামলাতে পারছিলেন না ক্ষীরাই অঞ্চল সভাপতি। ফলে তাঁকে সরিয়ে নতুন অঞ্চল সভাপতি করা হয় সেক রশিদকে। পরবর্তীকালে এই রশিদের নেতৃত্বে দল ঘুরে দাঁড়াতে সক্ষম হয় ক্ষীরাই অঞ্চলে। পরে আবার দিন কয়েক আগে রশিদকে সরিয়ে জনভিত্তিহীন স্বপন মন্ডলকে অঞ্চল সভাপতি করা হয়। তিনি বলেন এই নেতা পরিবর্তনের ফলে ক্ষীরাই অঞ্চলে দল ক্ষতিগ্রস্ত হবে। বিজেপি আবার শক্তিশালী হয়ে যাবে বলে প্রবীণ তৃণমূল নেতা জয়দেব সেনী উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। পাশাপাশি তিনি জানিয়েছেন গোটা বিষয়টি নিয়ে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে একটি চিঠি দেওয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছে। প্রসঙ্গত গত বছর লোকসভা নির্বাচনে পিংলা থানার বেশ কয়েকটি গ্ৰাম পঞ্চায়েত এলাকায় বিজেপি ভালো ফল করে। তারমধ্যে এই ক্ষীরাই গ্ৰাম পঞ্চায়েত ছিল। আর ফল ভালো করার পরেই প্রায় রোজই বিজেপির সঙ্গে তৃণমূলের গন্ডগোল হত। তখন পরিস্থিতি সামাল দিতে ক্ষীরাই অঞ্চলে তৎকালীন সভাপতি বিষ্ণুপদ খাঁড়াকে সরিয়ে শেখ রশিদকে সভাপতি করা হয়। তারপর ধীরে ধীরে তৃণমূল এই অঞ্চলে ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করে। দল ফের শক্তিশালী হয়ে উঠে। তখনই দিন কয়েক আগে এই রশিদকে সরিয়ে নতুন অঞ্চল সভাপতি করা হয় স্বপন মন্ডলকে। তারপরেই ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

error: Content is protected !!