Saturday, December 10, 2022
Homeজেলাপশ্চিম মেদিনীপুরসবংয়ের বেনাদিঘীতে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী এক যুবক! কি কারণ ?
Advertisement

সবংয়ের বেনাদিঘীতে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী এক যুবক! কি কারণ ?

Advertisement

Advertisement

খড়গপুর ২৪×৭ ডিজিটাল: পারিবারিক অশান্তির জের গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মঘাতী হলো এক যুবক। গতকাল রাতে মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার সবং থানার দেভোগ অঞ্চলের বেনাদিঘী এলাকায়। যুবকের নাম সন্দীপন মাইতি। বয়স ২৪ বছর। বেনাদিঘির উচুডিহা গ্রামে থাকতেন। এই ঘটনায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে এলাকায়। পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে।

- Advertisement -
Advertisement
- Advertisement -

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে,সন্দীপন পেশায় ই-কাট ডেলিভারি সংস্থার কর্মী ছিলো। বাবার তেমাথানি বাজারে একটি ছোট্ট চায়ের দোকান রয়েছে। মা গৃহবধূর। জানা যায় গত কয়েকদিন ধরে,বাবা-মায়ের সঙ্গে পারিবারিক অশান্তিতে জড়িয়ে পড়ে সন্দীপন। তারপর থেকে মানসিক অবসাদে ভুগছিল ওই যুবক।

গতকাল বাবা মা বাড়িতে না থাকার সুযোগে গলায় ফাঁস নেয় ওই যুবক। বাজার থেকে বাড়ি ফিরে রাত্রে ছেলেকে ডাকাডাকি করলে সাড়া না মেলায় সন্দেহ হয় বাবা-মার। তারপরেই দেখা যায় পাশের ঘরে গলায় দড়ি নিয়ে আত্মঘাতী হয়েছে ওই যুবক। বাবা-মার চিৎকার ও কান্নাকাটি শুনে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে স্থানীয় বাসিন্দারা। 

তারপর ওই যুবককে উদ্ধার করে সবং গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানে কর্মরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে। এদিকে এই ঘটনার খবর পেয়ে সবং থানার পুলিশ আধিকারিকরা ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। পুলিশ জানিয়েছে,পারিবারিক অশান্তির কারণে মানসিক অবসাদের জেরে আত্মঘাতী হয়েছে ওই যুবক।

ইতিমধ্যেই যুবকের মৃতদেহ সংগ্রহ করে ময়না তদন্তের জন্য খড়গপুর মহকুমা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। শুধুই কি মানসিক অবসাদের জেরে আত্মঘাতী? নাকি এর পিছনে রয়েছে অন্য কোন রহস্য রয়েছে। তা জানতে পুলিশ একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলার রুজু করে ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত শুরু করেছে।

 

 

Advertisement

RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

error: Content is protected !!