Sunday, September 19, 2021
Homeজেলাপশ্চিম মেদিনীপুরকোভিড বিধি মেনে খড়গপুর বইমেলার প্রস্তুতি শুরু।।

কোভিড বিধি মেনে খড়গপুর বইমেলার প্রস্তুতি শুরু।।

- Advertisement -

 

নিজস্ব সংবাদদাতা, খড়গপুর: যাবতীয় সংশয়ের অবসান হল। প্রতিবারের মতো এবারও খড়গপুর বইমেলা হবে। তবে কোভিড পরিস্থিতির প্রভাব এবারে খড়গপুর বইমেলায়। ২১ বছরে পা দিতে চলেছে ২০২১সালে এই বইমেলা। চিরাচরিত রীতি ভেঙ্গে এবারে খড়গপুর বইমেলা শুরু হবে নতুন বছরের জানুয়ারি মাসের দ্বিতীয় শনিবার থেকে। তবে মেয়াদের কোনও পরিবর্তন করা হয় নি। এবারে খড়গপুর বইমেলা শুরু হবে জানুয়ারি মাসের দ্বিতীয় শনিবার ৯ জানুয়ারি থেকে। চলবে ১৭ জানুয়ারি পর্যন্ত। একেবারে শুরু থেকে খড়গপুর বইমেলার সূচনা হয়েছে নতুন বছরের জানুয়ারি মাসের প্রথম শনিবার থেকে। এছাড়া কলেবরেও কিছুটা সংক্ষিপ্ত হচ্ছে খড়গপুর বইমেলা। এবারে দুটি অনুষ্ঠান বাতিল করা হয়েছে। এছাড়া স্টলের সংখ্যা কিছুটা কমছে। নামকরা প্রকাশনা সংস্থাগুলি আসলেও কিছু ক্ষুদ্র প্রকাশনা সংস্থা আসছে না। আর তারসাথে বইমেলা কমিটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে কোভিড বিধি মেনে গোটা বইমেলা পর্ব পরিচালনা করা হবে। বিশেষ করে মাস্ক ছাড়া বইমেলা প্রাঙ্গণে প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হবে। কেউ মাস্ক পরে না আসলে বইমেলা কমিটির পক্ষ থেকে প্রবেশদ্বারের সামনে একটি করে মাস্ক দেওয়া হবে। এছাড়া স্যানিটাইজেশনের ব্যবস্থা করা হবে। প্রতিবারের মতো এবারেও ২১ তম খড়গপুর বইমেলা খড়গপুর শহরের টাউন হল মাঠে হবে। এবারেও বইমেলা প্রাঙ্গণে প্রতিদিন সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে। বেশ কয়েকজন বিখ্যাত শিল্পী সঙ্গীত পরিবেশনের জন্য আসবেন। এই ব্যাপারে সোমবার খড়গপুর টাউন হল মাঠে এক সাংবাদিক সম্মেলনে খড়গপুর বইমেলা কমিটির সম্পাদক দেবাশিস চৌধুরী জানিয়েছেন ” প্রথমদিকে একটা সংশয় ছিল। কিন্তু রাজ্য সরকার বইমেলা সহ অন্যান্য মেলা আয়োজনের অনুমতি দেওয়ায় উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তবে প্রকাশনা সংস্থাগুলির কমবে। যদিও বড় প্রকাশনি সংস্থাগুলি আসবে।

- Advertisement -

অনেকে নিশ্চিত করেছেন অংশগ্ৰহনের ব্যাপারে। ইচ্ছা না থাকলেও পরিস্থিতির বিচারে কয়েকটি অনুষ্ঠান বাতিল করতে হচ্ছে। উদ্বোধন করতে আসছেন কবি পবিত্র মুখোপাধ্যায়। সাথে থাকবেন কবি মৃদুল দাশগুপ্ত।” তিনি জানিয়েছেন এবারে বইমেলায় সবমিলিয়ে স্টল থাকবে ৪৩টি। যদিও অন্যান্যবারে থাকত ৬০টি স্টল। তবে কয়েকটি বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের অংশগ্রহণ করার সম্ভাবনা রয়েছে। এই বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানগুলি আসলে স্টলের সংখ্যা আরও কিছুটা বাড়বে বলে তিনি জানালেন। এদিকে বইমেলা কমিটির অন্যতম সদস্য অপূর্ব চট্টোপাধ্যায় জানালেন এবারে বইমেলায় বসে আঁকো প্রতিযোগিতা, আন্ত বিদ্যালয় কুইজ প্রতিযোগিতা বাতিল করা হয়েছে। আর দাবা প্রতিযোগিতা হবে অনলাইনে। এবারে বইমেলায় সঙ্গীত পরিবেশন করতে আসছেন রবীন্দ্র সংগীত শিল্পী শ্রাবণী সেন, আধুনিক সঙ্গীত পরিবেশন করতে আসছেন ইমন চক্রবর্তী ও শেষদিনে আসছেন আসামের দেবজিত সাহা। এইদিন সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বইমেলা কমিটির সহ সভাপতি অধ্যাপক তপন কুমার পাল, কবি সুনিল মাজি, বাচিক শিল্পী কৃশাণু আচার্য, সঙ্গীত শিল্পী সৌমেন চক্রবর্তী, শিক্ষিকা মৌসুমী সরকার প্রমুখ।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

error: Content is protected !!