Sunday, December 5, 2021
Homeজেলাপশ্চিম মেদিনীপুরলেনিনের মূর্তিতে মালা দিলেন খড়গপুরের তৃণমূল বিধায়ক প্রদীপ সরকার।
Advertisement

লেনিনের মূর্তিতে মালা দিলেন খড়গপুরের তৃণমূল বিধায়ক প্রদীপ সরকার।

Advertisement

Advertisement

নিজস্ব সংবাদদাতা,খড়গপুর: নবনির্মিত লেনিনের মূর্তিতে মালা দিলেন। তারপরেই বললেন ” কমরেড লেনিন জিন্দাবাদ।” খড়গপুর পুরসভার প্রশাসক তথা বিধায়ক প্রদীপ সরকারের গলায় এই শ্লোগান শুনে উপস্থিত জনতা রীতিমতো বিস্মিত। আর তখন তাঁকে ঘিরে দাঁড়িয়ে রয়েছেন খড়গপুর শহরের তাবড় বাম নেতারা। পুরসভার প্রশাসক তথা বিধায়কেরপ্রশংসায় পঞ্চমুখ বাম নেতারা। অভূতপূর্ব এই নজির তৈরি হল খড়গপুর পুরসভার ২০ নম্বর ওয়ার্ডের ধ্যান সিং ময়দান এলাকায় নবনির্মিত লেনিন উদ্যানের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে। সোমবার দুপুরে এই উদ্যানটি ও লেনিনের নতুন একটি মূর্তি উদ্বোধন হয়েছে। এইদিন প্রথমে নবনির্মিত লেনিনের নামাঙ্কিত উদ্যানটির ফিতে কেটে উদ্বোধন করেন প্রবীণ সিপিআই নেতা বাসুদেব ঘোষ। তারপরে উদ্যানের এক প্রান্তে রাখা লেনিনের মূর্তিটির প্রাঙ্গণের উদ্বোধন করেন এই প্রবীণ নেতা। তারপর লেনিনের মূর্তিতে মালা দিয়ে কমরেড লেনিন জিন্দাবাদ এই শ্লোগান দিলেন খড়গপুর পুরসভার প্রশাসক তথা বিধায়ক প্রদীপ সরকার। শুধু তাই নয় শ্লোগান দেওয়ার পর মুষ্ঠিবদ্ধ হাত তুলে লেনিনের মূর্তির সামনে অভিবাদন জানালেন তৃণমূলের বিধায়ক। আর অনুষ্ঠানের শেষে বক্তব্য রাখার সময় তিনি এই দিনটি তাঁর জীবনের ইতিহাসে লেখা থাকবে বলে জানালেন। সৌজন্যের শিখরে পৌঁছে খড়গপুর পুরসভার প্রশাসক তথা বিধায়ক প্রদীপ সরকার বললেন ” এই শহরে যে সব বাম নেতাদের দেখে বড় হয়েছি তাঁরা সবাই উপস্থিত হওয়ায় খুশি হয়েছি। রাজনীতি তো থাকবেই। কিন্তু খড়গপুর শহরকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ভাবনা সবাইকে রাজনীতির উর্ধ্বে উঠে ভাবতে হবে। একসাথে কাজ করতে হবে। আমার যদি কোনও ভুল হয় তাহলে সেই ভুলের গঠনমূলক সমালোচনা হোক। কোনও আপত্তি নেই। ভুল শুধরে নেওয়া যাবে।” এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন ” রাজনৈতিক সৌজন্যতার একটি মাইল স্টোন তৈরি হল আজ খড়গপুর শহরে।” তিনি বলেন লেনিন কারোর একার নয়। লেনিন মেহনতি মানুষের ছিলেন। সাধারণ মানুষের জন্য কাজ করে গিয়েছেন। তার আগে আমরা বামপন্থী সংগঠনের নেতা অনিল দাস বলেন ” অভিনন্দন প্রদীপ সরকারকে। যে রাজনৈতিক সৌজন্যতা ও পরিবেশ এইদিন তৈরি হল এটা একটি নজির তৈরি করল। এই সৌজন্যের বার্তা গোটা রাজ্যে ছড়িয়ে যাক।” সিপিআইএমের জেলা কমিটির সদস্য অনিত বরন মন্ডল বিধায়ক প্রদীপ সরকারকে ছোটো ভাই সম্বোধন করে লেনিনের নামাঙ্কিত এই উদ্যানটিকে ফের সংস্কার করে গড়ে তোলা ও লেনিনের নতুন একটি মূর্তি বসানোর প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়ে উঠেন। তিনি বলেন ” এটা মনে করি না নির্বাচনের আগে প্রদীপের কোনও চমক। এটা রাজনৈতিক সৌজন্যের পরিচয়।

- Advertisement -
Advertisement
- Advertisement -

রাজনৈতিক বিরোধীতা সত্ত্বেও প্রদীপকে হাজার হাজার সেলাম জানাই।” সিপিএমের খড়গপুর পূর্ব এরিয়া কমিটির সম্পাদক সবুজ ঘোড়ই পুরসভার এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করলেন। আর সিপিআই নেতা বাসুদেব বন্দ্যোপাধ্যায় পাশে বসে থাকা বিধায়ক প্রদীপ সরকারকে কমরেড সম্বোধন করে এই কাজের জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন সিপিআইএমের খড়গপুর শহর পশ্চিম এরিয়া কমিটির সম্পাদক মধুসূদন রায়, দক্ষিণ এরিয়া কমিটির সম্পাদক অমিতাভ দাস, পুরসভার ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডের সিপিএমের বিদায়ী কাউন্সিলর তথা কোঅর্ডিনেটর স্মতিকনা দেবনাথ সহ শাসকদলের বেশ কয়েকজন বিদায়ী কাউন্সিলর। প্রসঙ্গত ১৯৭২ সালে প্রয়াত সিপিআই নেতা ও প্রাক্তন সাংসদ নারায়ণ চৌবের উদ্যোগে এই জায়গায় রেড স্টার ক্লাব তৈরি হয়। এই ক্লাবের উদ্যোগে লেনিনের নামাঙ্কিত উদ্যানটি প্রতিষ্ঠিত হয়। বসানো হয় লেনিনের একটি আবক্ষ মূর্তি। পরবর্তীকালে প্রয়োজনীয় রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে এই উদ্যানটির বেহাল দশা হয়। ভেঙ্গে পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে ছিল মহামতি লেনিনের মূর্তিটি।

Advertisement

RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

error: Content is protected !!