Thursday, December 2, 2021
Homeজেলাপশ্চিম মেদিনীপুরব্রেকিং: খড়গপুরে এক ব্যক্তির গলার নলি কাটা অবস্থায় মৃতদেহ উদ্ধার,এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য
Advertisement

ব্রেকিং: খড়গপুরে এক ব্যক্তির গলার নলি কাটা অবস্থায় মৃতদেহ উদ্ধার,এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য

Advertisement

Advertisement

নিজস্ব সংবাদদাতা,খড়গপুর: একটি হোন্ডাই গাড়ির ভেতর থেকে গলার নলি কাটা অবস্থায় এক ঠিকাদারের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রবিবার গভীর রাতে খড়গপুর গ্ৰামীণ থানার বুরামালা এলাকায় ছয় নম্বর জাতীয় সড়কের ধারে গাড়ির চালকের পেছনের সীটে রক্তাক্ত অবস্থায় মৃতদেহটি উদ্ধার করেছে পুলিশ। নাম অরবিন্দ সিংহ রায় (৪৮)। বাড়ি শালবনি থানার ঝাখারশেনি এলাকায়।মৃত ব্যাক্তি শালবনি টাঁকশালের ঠিকাদার ছিলেন।মৃতের পরিবার সহ ঘনিষ্ঠদের অভিযোগ এই ব্যাক্তিকে খুন করা হয়েছে। এই ব্যাপারে খড়গপুর মহকুমা পুলিশ আধিকারিক দীপক সরকার জানিয়েছেন এখনও পর্যন্ত কোনও অভিযোগ দায়ের হয় নি। তবে প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে এই ব্যাক্তিকে খুন করা হয়েছে। যদিও ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়া গেলে সবকিছু স্পষ্ট হয়ে যাবে বলে তিনি জানালেন। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। এদিকে মৃতের বৃদ্ধ বাবা রাম নারায়ণ সিংহ রায় বলেছেন তাঁর ছেলেকে টাকা পয়সার কারনে খুন করা হয়েছে।

- Advertisement -
Advertisement
- Advertisement -

রবিবার বাড়ি থেকে দুপুর সাড়ে বারোটায় খাওয়া দাওয়া করে একটি মিটিং আছে বলে বেরিয়ে যায়। তিনি বলেছেন ছেলে একজনকে টাকা ধার দিয়েছিল। অপরদিকে মৃতের বন্ধু সুমন ঘোষ জানিয়েছেন অরবিন্দবাবু ৩৫ লক্ষ টাকা ধার দিয়েছিলেন কাঞ্চন সাহা নামে এক ব্যক্তিকে। সেই টাকা বারবার ফেরত চেয়েও অরবিন্দ পান নি। ফলে তিনি একটি মামলা দায়ের করেন। তারপরেই কাঞ্চন সাহা গত বছর সরস্বতী পূজার দিন আত্মহত্যা করেন। পরবর্তীকালে কাঞ্চন সাহার ভাগ্নে প্রভাত সাহা গোটা বিষয়টি নিয়ে ডিল শুরু করেন। অভিযোগ তারপর থেকেই প্রভাত সাহা ও নাসির নামে প্রভাতবাবুর এক ঘনিষ্ঠ অরবিন্দ সিংহ রায়কে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য হুমকি দিতে শুরু করে। প্রায় ছয় মাস ধরে এই হুমকি দেওয়া চলছিল বলে সুমনবাবু জানালেন। তারমধ্যেই এই খুন। এই খুন পূর্ব পরিকল্পিত বলে সকলের ধারনা। ঘটনাটিকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

Advertisement

RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

error: Content is protected !!