Thursday, December 2, 2021
Homeজেলাপশ্চিম মেদিনীপুরখড়গপুরে বাম জোটের হয়ে প্রচারে নামছে, আমরা বামপন্থী নামে সংগঠনের নেতারা
Advertisement

খড়গপুরে বাম জোটের হয়ে প্রচারে নামছে, আমরা বামপন্থী নামে সংগঠনের নেতারা

Advertisement

Advertisement

খড়গপুর ২৪×৭: বাম কংগ্রেস জোটের প্রার্থীকে সমর্থন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে খড়গপুর শহরের আমরা বামপন্থী নামে সংগঠনের নেতারা। তাঁরা ঠিক করেছেন খড়গপুর সদর বিধানসভা কেন্দ্রে বাম ও কংগ্রেস জোটের প্রার্থী রীতা শর্মার পক্ষে নির্বাচনী ময়দানে নামবেন।

- Advertisement -
Advertisement
- Advertisement -

যদিও এখনও পর্যন্ত এই জোটের পক্ষ থেকে এই সংগঠনের নেতাদের সঙ্গে কোনও আলোচনায় বসা হয় নি। তবে প্রয়োজনে এককভাবেই এই সংগঠন জোট প্রার্থীর পক্ষে ময়দানে নামবে বলে জানা গিয়েছে।সিপিএম থেকে বেরিয়ে যাওয়া বেশ কিছু নেতা ও কর্মীদের নিয়ে তৈরি হয়েছে এই সংগঠনটি। ইতিমধ্যেই গত বছরের শেষের দিকে এই সংগঠনের পক্ষ থেকে রাজ্য ও জেলা বামফ্রন্টের চেয়ারম্যানের কাছে ও সিপিএমের রাজ্য ও জেলা সম্পাদকের কাছে লিখিতভাবে আবেদন করা হয়েছে খড়গপুর শহরের জোটে সামিল করার জন্য। কিন্তু সেই আবেদনের পর প্রায় তিন মাস পরেও কোনো সাড়া আসে নি। এমনকি নির্বাচনের দোরগোড়ায় এসেও আমরা বামপন্থী নামে সংগঠনটিকে কোনও আহ্বান জানানো হয় নি। যদিও তাতে হাল ছাড়তে নারাজ এই সংগঠনের নেতারা। এই ব্যাপারে আমরা বামপন্থী সংগঠনের খড়গপুর শহরের আহ্বায়ক অনিল দাস সাফ জানিয়েছেন তাঁরা তৃণমূল ও বিজেপির বিরুদ্ধে। আর এই অবস্থান থেকেই তাঁরা খড়গপুর সদর বিধানসভা কেন্দ্রে জোট প্রার্থী রীতা শর্মার পক্ষে নির্বাচনী ময়দানে নামবেন। পাশাপাশি তিনি বলেছেন ” আমরা মনে করি সিপিআইএম পার্টি ভারতের মধ্যে শ্রেষ্ঠতম দল। এই পার্টির সিদ্ধান্ত ও কর্মসূচি আমরা সমর্থন করি। তবে আমাদের জোটে না রাখা হলেও আমরা নিজেদের মত করে বাম কংগ্রেস জোটের প্রার্থী রীতা শর্মার পক্ষে নির্বাচনী ময়দানে নামব।” পাশাপাশি তিনি জানিয়েছেন খড়গপুর শহরের কিংবা জেলা সিপিআইএমের নেতারা কি করবেন জানেন না। তবে কংগ্রেসের সাথে আলোচনা হবে বলে তিনি জানালেন। তারসাথে এও জানালেন নিজেরা উদ্যোগ নিয়ে প্রচারের সমস্ত কাজ করবেন। এই ব্যাপারে সিপিআইএমের জেলা কমিটির সদস্য সবুজ ঘোড়ই জানিয়েছেন এই সংগঠনটি রাজ্য ও জেলা বাম কংগ্রেস জোটের শরিক নয়। তাই এই সংগঠনের নেতাদের কোনও সভা ও কর্মসূচিতে ডাকা হয় না। তবে এই সংগঠনের পক্ষ থেকে যদি বাম কংগ্রেস জোটের প্রার্থীর পক্ষে প্রচার করে তাহলেও কিছু বলার নেই। আর কংগ্রেসের খড়গপুর শহর কমিটির সভাপতি অমল দাস জানিয়েছেন আমরা বামপন্থী সংগঠন জোটের মধ্যে নেই। তবে এই সংগঠনের নেতাদের সঙ্গে আলোচনা বসার সম্ভাবনা রয়েছে বলে তিনি জানালেন। পাশাপাশি তিনি বললেন ” আমাদের প্রার্থীর পক্ষে যে কোনও সংগঠন বা ব্যাক্তি প্রচার করতে পারেন। তারজন্য আলাদা করে কোনও অনুমতি নেওয়ার প্রয়োজন নেই।” এদিকে নির্বাচনে কি করবেন বা কি ভূমিকা পালন করবেন সেই ব্যাপারে এখনও পর্যন্ত মুখে কুলুপ এঁটে বসে রয়েছেন বিদ্রোহী তৃণমূলের জেলা মুখপাত্র তথা সাধারণ সম্পাদক দেবাশিস চৌধুরী। বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বারবার ফোন করা হলেও তিনি ফোন ধরেন নি। ফলে তৃণমূলের বিদ্রোহী নেতা ও তাঁর অনুগামীরা এবারে নির্বাচনে কি করবেন সেটি নিয়ে জল্পনা তুঙ্গে উঠেছে। কারন গত শুক্রবার রাতে তৃণমূল নেতা দেবাশিস চৌধুরী দলের জেলা মুখপাত্র ও সাধারণ সম্পাদকের পদ থেকে পদত্যাগ করার চিঠি রাজ্যের সভাপতি সুব্রত বক্সি ও সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে পাঠিয়ে দিয়েছেন। আর জানিয়ে দিয়েছেন দলের সঙ্গে তাঁর আর কোনও সম্পর্ক নেই। যদিও তারপরেই দেবাশিস চৌধুরীর বিজেপিতে যোগ দেওয়া নিয়ে ব্যাপক জল্পনা তৈরি হয়। কিন্তু বৃহস্পতিবার রাত পর্যন্ত তিনি বিজেপিতে যোগ দেন নি। ফলে তাঁর ভূমিকা নিয়েও গোটা খড়গপুর শহরের মানুষের মধ্যে একটি কৌতুহল তৈরি হয়েছে।

Advertisement

RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

error: Content is protected !!