করোনা মোকাবিলায় খড়গপুরে দিনভর রাস্তায় ঘুরে বার্তা পুলিশের

খড়গপুর ২৪×৭:  করোনা মোকাবিলায় বাংলা নববর্ষের প্রথম দিন থেকেই রাস্তায় নামল প্রশাসনিক আধিকারিকরা। বৃহস্পতিবার বাংলা নববর্ষবরণের দিন সকাল ও সন্ধ্যায় খড়গপুর মহকুমা শাসক খড়গপুর শহরের কিছু জায়গায় যান।

এইদিন সকালে তিনি খড়গপুর শহরের ইন্দা এলাকা থেকে ট্রাফিক এলাকায় ঘুরে বেড়ান। আর সন্ধ্যার পর থেকে শহরের কয়েকটি বাজার এলাকায় ঘুরে বেরালেন। সব জায়গাতেই তিনি মাস্ক ব্যবহার করার উপর বিশেষ জোর দিয়েছেন। এইদিন সকালে ইন্দা এলাকায় গিয়ে দেখেন অনেকের মুখে মাস্ক নেই। সেই সব মাস্কবিহীন মানুষজনকে সতর্ক করেন। তারসাথে সকলকে মাস্ক পরতে বাধ্য করেন।

আর যাঁরা মাস্ক আনেন নি তাঁদের প্রত্যেককে বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়া হয়। পাশাপাশি এইদিন সর্বত্র মাস্ক ব্যবহার করা ও কোভিড বিধিনিষেধ মেনে চলার আহ্বান করে সচেতনতামূলক প্রচার করেন। এই ব্যাপারে খড়গপুর মহকুমা শাসক আজমল হোসেন বলেছেন এই সচেতনামূলক প্রচার ও সতর্কীকরণ অভিযান প্রতিদিন চালানো হবে। পাশাপাশি তিনি করোনা সংক্রমণের বাড়বাড়ন্তে অনেকের মুখে মাস্ক না থাকায় ক্ষোভ ও বিরক্তি প্রকাশ করেছেন।

তিনি সাফ জানিয়েছেন করোনা সংক্রমণ আটকানোর জন্য সমস্ত রকমের পদক্ষেপ নেওয়া হবে। কোনও শিথিলতা বরদাস্ত করা হবে না। এছাড়া এইদিন সন্ধ্যার পর শহরের কয়েকটি বাজার এলাকায় গিয়ে মাস্ক ব্যবহার করার জন্য অনুরোধ করেন। এদিকে গত ২৪ ঘন্টায় খড়গপুর শহরে করোনা সংক্রমণের সংখ্যা একটু কমের দিকে। তবে এবারে আক্রান্তদের মধ্যে রেলকর্মীদের সংখ্যা বেশি। সংখ্যায় পনেরো জন। তবে মোহনপুর ব্লক এলাকায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে।

এই ব্লকের শিয়ালসাই গ্ৰাম পঞ্চায়েতের আঁতলা এলাকায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে পনেরোতে। তারমধ্যে গত ২৪ ঘন্টায় শুধু এই এলাকায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দশ। আর মুকুন্দপুর গ্ৰামে একজন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়া ডেবরা থানা এলাকায় পাঁচজন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তারমধ্যে ধামতোড় এলাকায় একই পরিবারের পাঁচ বছরের সন্তান ও মা রয়েছেন। সবমিলিয়ে করোনা পরিস্থিতি ক্রমেই উদ্বেগ বাড়াচ্ছে।