EXCLUSIVE: মৃত্যুর ২৭ ঘণ্টা পার, সবং গ্রামীণ হাসপাতলে পড়ে রইল করোনা আক্রান্তের মৃতদেহ

খড়গপুর ২৪×৭,সবং: হসপিটালেই পড়ে থাকল করোনা আক্রান্তের মৃতদেহ। প্রশাসন জেনেও মৃতদেহ সৎকারের কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।

মৃত্যুর পর প্রায় ২৭ ঘন্টা কেটে গেলেও মঙ্গলবার সকাল সাতটা থেকে বুধবার দুপুর পর্যন্ত সবং গ্রামীণ হসপিটালে পড়ে রইল মৃতদেহ। সূত্রে জানা যায়, পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার সবং ব্লকের বুড়াল অঞ্চলের বাড়জগু এলাকার বাসিন্দা দিলীপ আদকের(৫৮) করোনায় মৃত্যু হয়।

বেশ কয়েকদিন তিনি বাড়িতে অসুস্থ ছিলেন বলে জানা গেছে পরিবার সূত্রে। তারপরেই তাকে ভর্তি করা হয় সবং গ্রামীণ হাসপাতালে। সেখানেই করোনা পরীক্ষা হলে পজেটিভ রিপোর্ট আসে। গতকাল সকাল সাতটায় হাসপাতালে মৃত্যু হয় দিলীপ আদকের। মৃত্যুর খবর পাওয়ার পর মৃতদেহ বাড়িতে নিয়ে যেতে রাজি হয়নি মৃতের পরিবার। গতকাল থেকে আজ পর্যন্ত হসপিটালেই পড়ে রইল মৃতদেহ। ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক আতঙ্কের সৃষ্টি হয়।

স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, গতকাল সকালে ওই ব্যক্তির করোনায় মৃত্যু হয়। মৃত্যুর পর থেকে আজ সকাল থেকে বেলা গড়িয়ে যাওয়ার পরও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও প্রশাসন মৃতদেহ সৎকারের ব্যবস্থা নেয়নি। হসপিটাল কর্তৃপক্ষ ও প্রশাসনের নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগ তুলেছে হসপিটাল চত্বর এলাকার মানুষজন।

তাদের দাবি ইতিমধ্যে ওই মৃত দেহকে হসপিটাল থেকে সরিয়ে সৎকারের ব্যবস্থা করুক হসপিটাল কর্তৃপক্ষ। এ ব্যাপারে সবং গ্রামীণ হাসপাতাল এর BMOH ফোনে বলেন। মৃতদেহ নিয়ে যাওয়ার জন্য জানানো হয়েছিল। গতকাল গাড়ি খারাপ ছিলো তাই মৃতদেহ যায়নি। আজ গাড়ি এসেছে নিয়ে যাবে মৃতদেহ।