এক্সক্লুসিভ: সবংয়ে একাধিক ডিবা ভর্তি বোমা উদ্ধার, শুরু রাজনৈতিক তরজা

খড়গপুর ২৪×৭: জনবসতি এলাকায় উদ্ধার একাধিক ডিবা ভর্তি তাজা বোমা, শুরু রাজনৈতিক তরজা
ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার সবং থানার ১৩ নম্বর বিষ্ণুপুর অঞ্চলের জগন্নাথ চক এলাকায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, এদিন সকাল নাগাদ এলাকাবাসীরা নদীতে মাছ ধরার পর বাড়ি ফেরার পথে। এলাকায় বাঁশ ঝোপের নীচে দুটি ডিবা ভর্তি তাজা বোমা পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা।  ঘটনার খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়তেই ভিড় জমায় স্থানীয় বাসিন্দারা। এলাকা জুড়ে ছড়িয়ে পড়ে ব্যাপক আতঙ্ক। এরপর ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে সবং থানার পুলিশ আধিকারিক সহ বিশাল পুলিশবাহিনী।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বোমা-গুলিতে উদ্ধার করে নিষ্ক্রিয় করার জন্য। ইতিমধ্যে মেদিনীপুর বোম স্কোয়াডে খবর দেওয়া হয়েছে। এদিকে বোমা উদ্ধার ঘিরে তৃণমূল-বিজেপির মধ্যে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা। তৃণমূলের অভিযোগ, বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা এইসব কাজ করছে।

এ ব্যাপারে বিষ্ণুপুর অঞ্চল তৃনমূল কংগ্রেসের সভাপতি গণেশ প্রামানিক বলেন। নির্বাচনের সময় কাল থেকে বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা, মানুষকে ভীতসন্ত্রস্ত করার জন্য এলাকায় বোমা মজুদ করে রাতভর বোমাবাজি করছে। এমনকি এলাকাবাসীসহ তৃণমূল কর্মীদের প্রতিদিন হুমকি দেওয়া হচ্ছে। অন্যদিকে বিজেপির তরফ সম্পূর্ণ অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে, এ ব্যাপারে বিজেপির সবং পূর্ব মন্ডলের সহ-সভাপতি অজিত মন্ডলের দাবি, এই ঘটনার সঙ্গে বিজেপি কর্মীরা কোনোভাবেই জড়িত নয়।

তৃণমূল কর্মীরা নির্বাচনের ফল ঘোষণার পর থেকে এলাকায় সন্ত্রাস চালাচ্ছে। বিজেপি কর্মীদের বাড়ি ভাঙচুর করছে। এলাকাজুড়ে বিজেপি কর্মীরা ঘরছাড়া রয়েছে। তৃণমূল কর্মীরা নিজেরাই বোমা মজুত রেখে মিথ্যা মামলায় বিজেপি কর্মীদের ফাঁসানোর চেষ্টা করছে। এলাকায় উত্তেজনা থাকায়, ইতিমধ্যে এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল পুলিশবাহিনী। কী উদ্দেশ্যে এত বোমা এলাকায় মজুদ করে রাখা হয়েছিল। তার তদন্ত শুরু করেছে সবং থানার পুলিশ।