সবংয়ের দশগ্রাম প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে, সেফ হোম গড়ার প্রস্তাব

খড়গপুর ২৪×৭,সবং: করোনায় আক্রান্ত হয়ে ইতিমধ্যে চারজনের মৃত্যু হয়েছে। ৪৭৮ জন করোনা আক্রান্ত। ফলে পরিস্থিতি ক্রমশই ভয়াবহ আকার ধারণ করতে চলেছে সবংয়ে। সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে সবং ব্লকের দশগ্ৰাম হাসপাতালকে সেফ হোম করা হচ্ছে। তার প্রস্তাব ইতিমধ্যে জেলায় পাঠানো হয়েছে।

জেলাশাসকের সবুজ সংকেত পেলেই চালু হয়ে যাবে। আর কোভিড মোকাবিলায় বিডিওকে চেয়ারম্যান ও ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক সুভাষ কান্ডারকে আহ্বায়ক করে একটি টাস্কফোর্স গঠন করা হয়েছে মঙ্গলবার। এইদিন সবং ব্লক কার্যালয়ে একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক হয়েছে কোভিড পরিস্থিতি মূল্যায়ন করে মোকাবিলার লক্ষ্যে। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন রাজ্য সরকারের জলসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী মানস ভুঁইয়া, জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক নিমাই মন্ডল, ডেবরা মহকুমা পুলিশ আধিকারিক দীপাঞ্জন ভট্টাচার্য, সিআই কৃষ্ণেন্দু হোতা, বিডিও তুহিন শুভ্র মাহান্তি, ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক সুভাষ কান্ডার, প্রাক্তন বিধায়ক গীতা ভুঁইয়া প্রমুখ।

বৈঠকে মন্ত্রী মানস ভুঁইয়া পুলিশ, ব্লক স্বাস্থ্য দফতর ও বিডিওর মধ্যে নিবিড় সমন্বয়সাধনের উপর গুরুত্ব দিয়েছেন। পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন গত বছরের মতো এবারও এই তিনটি দফতরকে সমন্বয় সাধন করে কাজ করতে হবে। পাশাপাশি তিনি মোহাড় হাসপাতালে সেফ হোম চালু করা ও সবং গ্ৰামীণ হাসপাতালের আইসোলেশন বিভাগকে কোভিড হাসপাতালে রূপান্তরিত করার আবেদন করেছেন।

বিডিও তুহিন শুভ্র মাহান্তি বলেছেন টাস্কফোর্সের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজ হবে করোনা পরীক্ষার সংখ্যা বৃদ্ধি করা। উপসর্গ নিয়ে লুকিয়ে থাকা ব্যাক্তিদের চিহ্নিত করে পরীক্ষা করানোর ব্যবস্থা করা। এছাড়া কোভিড সংক্রান্ত যাবতীয় কাজ এই টাস্কফোর্স করবে বলে তিনি জানালেন। আশাকর্মীদের আরও সক্রিয় করা হবে বলে জানা গিয়েছে।