খড়গপুরে স্বাস্থ্যকেন্দ্রে জল বন্ধ করল রেল! কি কারণ রয়েছে এর পিছনে?

খড়গপুর, ২৩ মে: করোনা আবহেও কেন্দ্র-রাজ্য সংঘাত! সরকারি স্বাস্থ্যকেন্দ্রে জল সরবারহ বন্ধ করে দেওয়ার অভিযোগ উঠল রেলের বিরুদ্ধে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়াল রেলশহর খড়গপুরে।

জানা গিয়েছে, খড়গপুরের শহরের ধোবিঘাট এলাকায় রেলের জমিতে চলে সরকারি স্বাস্থ্যকেন্দ্র। দূর-দূরান্ত চিকিত্‍সা করাতে এই স্বাস্থ্যকেন্দ্রে আসেন বহু মানুষ। এদিন সকালে আচমকাই জল সরবরাহ বন্ধ করে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। ফলে চরম দুর্ভোগে পড়েন চিকিত্‍সক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী ও রোগীরা।

কেন এমনটা হল? খড়গপুরের প্রাক্তন তৃণমূল বিধায়ক প্রদীপ সরকারের দাবি, কর বকেয়া থাকার কারণে সরকারি স্বাস্থ্যকেন্দ্রে জল সরবারহ বন্ধ করে দিয়েছে রেল। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পৌঁছন এলাকার বর্তমান বিজেপি বিধায়ক হিরণ। স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিত্‍সক ও লাগোয়া কোয়ার্টারের আবাসিকদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। বিধায়কের পাল্টা দাবি, বিষয়টি নিয়ে নোংরা রাজনীতি করছে তৃণমূল। স্বাস্থ্যকেন্দ্রে জল সরবরাহ বন্ধ করা হয়নি। কোনও কারণে যতটা জল আসার কথা, ততটা আসছে না। খুব তাড়াতাড়ি সমস্যার সমাধান করা হবে।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ নির্বাচনে এই খড়গপুর কেন্দ্রে জিতেছিলেন খোদ বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। পরবর্তীকালে মেদিনীপুরের সাংসদ নির্বাচিত হওয়ার পর বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দেন তিনি। উপনির্বাচনে ঘাসফুল ফোটে রেলশহরে। কিন্তু একুশের নির্বাচনে আসনটি ধরে রাখতে পারেনি তৃণমূল। প্রথমবার ভোটে দাড়িয়েই খড়গপুরের থেকে বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছেন বিজেপি তারকা প্রার্থী অভিনেতা হিরণ।