Monday, September 27, 2021
Homeজেলাপশ্চিম মেদিনীপুরপড়ুয়াদের মিড ডে মিলের সামগ্ৰী প্রধান শিক্ষকের বাড়িতে মজুত করে রাখার অভিযোগ,...

পড়ুয়াদের মিড ডে মিলের সামগ্ৰী প্রধান শিক্ষকের বাড়িতে মজুত করে রাখার অভিযোগ, ঘটনাকে কেদ্র করে উত্তাল দাঁতন

- Advertisement -

KHARAGPUR 24X7(DANTAN): একটি শিশু শিক্ষা কেন্দ্রের পড়ুয়াদের মিড ডে মিলের সামগ্ৰী প্রধান শিক্ষকের বাড়িতে মজুত করার অভিযোগ উঠেছে। আর এই অভিযোগকে কেন্দ্র করে রবিবার সকালে উত্তাল হয়ে ওঠে দাঁতন এক নম্বর ব্লকের শালিকোঠা গ্ৰাম পঞ্চায়েতের একমালিপুর এলাকা।

ক্ষুব্ধ অভিভাবক ও স্থানীয় মানুষজন প্রধান শিক্ষকের বাড়ির সামনে তুমুল বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। পরে দাঁতন থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে যান দাঁতন এক নম্বর ব্লকের যুগ্ম বিডিও। প্রধান শিক্ষককে আটক করা হয়। প্রধান শিক্ষকের বাড়িতে মজুত করে রাখা মিড ডে মিলের সামগ্ৰী বাজেয়াপ্ত করা হয়। তারপরেই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

- Advertisement -

ঘটনার তদন্ত করে দোষী প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি করেছেন দাঁতনের বিধায়ক বিক্রম প্রধান। জানা গিয়েছে, দাঁতন এক নম্বর ব্লকের শালিকোঠা গ্ৰাম পঞ্চায়েতের নাকপাড়া এলাকায় একটি শিশু শিক্ষা কেন্দ্র রয়েছে। এই শিশু শিক্ষা কেন্দ্রের প্রধান শিক্ষক দেবকি নন্দন পাল। পড়ুয়ার সংখ্যা ৯০। অভিযোগ প্রধান শিক্ষক দেবকি নন্দন পাল মিড ডে মিলের সামগ্ৰী স্কুলে না রেখে একমালিপুর এলাকায় নিজের বাড়িতে মজুত করে রেখেছেন।

অথচ পড়ুয়ারা মিড ডে মিল পাচ্ছে না। এইদিন বিষয়টি নিয়ে খোঁজখবর করতে গিয়ে অভিভাবক ও স্থানীয় মানুষজন জানতে পারেন মিড ডে মিলের সামগ্ৰী প্রধান শিক্ষকের বাড়িতে মজুত করা হয়েছে। তারপরেই সবাই মিলে প্রধান শিক্ষকের বাড়িতে গিয়ে তুমুল বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। সেইসময় দাঁতন এক নম্বর পঞ্চায়েত সমিতির বিরোধী দলনেতা তথা বিজেপির এই এলাকার পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য রাজকুমার মাইতি ঘটনাস্থলে পৌঁছান। অভিযোগ তিনি সেখানে গিয়ে প্রধান শিক্ষকের পক্ষে কথাবার্তা বলা আরম্ভ করেন। তাতে পরিস্থিতি আরও জটিল হয়ে ওঠে। অভিভাবক ও স্থানীয় মানুষজনের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।

তাঁরা বিরোধী দলনেতাকে ঘিরে ধরে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। এমনকি অনেকে মারমুখী হয়ে তেড়ে যান। খবর পেয়ে দাঁতন থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। জানা গিয়েছে প্রধান শিক্ষকের বাড়ি থেকে তিন কুইন্টাল চাল, ৩৬ কেজি মুসুর ডাল, ৫৬ কেজি চিনি, ৭২ কেজি ছোলা ও ২১ কেজি ৬০০ গ্ৰাম সোয়াবিন বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। এই ব্যাপারে দাঁতন এক নম্বর ব্লকের বিডিও চিত্রজিৎ বসু জানিয়েছেন ” প্রধান শিক্ষকের বাড়িতে মজুত করে রাখা মিড ডে মিলের সামগ্ৰী বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে।

তাঁর কাছে কৈফিয়ত চাওয়া হবে এই কাজের জন্য। জবাব সন্তোষজনক না হলে বিভাগীয় তদন্ত করা হবে।” জানা গিয়েছে শনিবার এই মিড ডে মিলের সামগ্ৰী পাঠানো হয়েছে। তবে এইভাবে মিড ডে মিলের সামগ্ৰী বাড়িতে রাখা ঠিক হয় নি বলে তিনি জানিয়েছেন। তিনি বলেন ” শিশু শিক্ষা কেন্দ্রে রাখতে না পারলে আমাদের বললে ব্যবস্থা করে দেওয়া যেত।” আর পুলিশ জানিয়েছে প্রধান শিক্ষককে আটক করা হয়েছে। তবে কোনও অভিযোগ দায়ের হয় নি।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

error: Content is protected !!