দাঁতনে যজমানের বাড়িতে পুজো করতে এসে এক শিশু কন্যাকে শ্লীলতাহানীর অভিযোগ পুরোহিতের বিরুদ্ধে

KGP 24X7(DANTAN): শ্রাদ্ধানুষ্ঠানের বাৎসরিক ক্রিয়াকর্মের পুজো করতে এসে যজমানের বাড়িতে সাত বছরের এক শিশুকন্যার শ্লীলতাহানি করার অভিযোগ উঠলো এক পুরোহিতের বিরুদ্ধে।

ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর পুরোহিতকে বাড়িতে আটকে রেখে, পাড়ায় সালিশি সভা বসিয়ে শাস্তি স্বরূপ গলায় টিন বেঁধে, অপরাধ স্বীকারের পোস্টার ঝুলিয়ে ঘোরানো হোলগ্রামে। পোস্টারে লেখা আছে, “আমি শিশু ধর্ষন করার অপরাধে আমার এই শাস্তি।” ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুরের দাঁতন থানার তুরকা অঞ্চলে। খবর পেয়ে পুলিশ এসে অভিযুক্ত পুরোহিতকে আটক করে নিয়ে যায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য। শিশুকন্যা চিকিৎসাধীন।

জেলা পুলিশের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, ‘অভিযুক্তকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে এসেছি। অভিযোগ পাওয়ার পর বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।’ পুরোহিতের জঘণ্যতম কাজের তীব্র নিন্দা করেছেন এলাকার বিধায়ক বিক্রম প্রধান। এলাকার সাধারণ মানুষ কঠোর শাস্তি দাবি করেছেন অভিযুক্ত পুরোহিতের।

স্থানীয় সুত্রে জানা গিয়েছে, বুধবার দাঁতন-২ ব্লকের তুরকা অঞ্চলের একটি গ্রামে একজনের বাড়িতে শ্রাদ্ধানুষ্ঠানের বাৎসরিক কাজ কর্মের জন্য তাঁদের বাড়িতে ঠাকুর নিয়ে এসেছিলেন পুরোহিত। পুজোর কাজকর্মের ফাঁকে সকলের চোখের আড়ালে যজমান বাড়ির এক শিশুকন্যার সঙ্গে অশালীন আচরণ করে পুরোহিত। স্থানীয়রা জানিয়েছেন অভিযুক্ত পুরোহিতের নাম শঙ্কর ত্রিপাঠী।

এই ঘটনা জানাজানির পর, পুরোহিতকে আটকে রেখে বিকেলে গ্রামে সালিশি সভা বসিয়ে গলায় তেলের টিন বেঁধে বাজাতে বাজাতে, অপরাধ স্বীকারের পোস্টার ঝুলিয়ে ঘোরানো হয় গ্রামে। পুলিশ খবর পেয়ে অভিযুক্ত পুরোহিতকে আটক করে নিয়ে যায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য। পুরোহিতের কঠোর শাস্তি দাবি করেছেন এলাকাবাসী।