দুই সমাজবিরোধী গোষ্ঠীর গন্ডগোলের জেরে উত্তপ্ত হয়ে উঠল খড়গপুর শহর,গন্ডগোলের সময় গুলি চালানোর অভিযোগ

নিজস্ব সংবাদদাতা,খড়গপুর:  ফের দুই সমাজবিরোধী গোষ্ঠীর গন্ডগোলের জেরে উত্তপ্ত হয়ে উঠল খড়গপুর শহর। এবারে ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার বিকালে খড়গপুর টাউন থানার ঝিনতালাব এলাকায়।

খড়গপুর পুরসভার নয় ও দশ নম্বর ওয়ার্ডের সীমান্ত এই এলাকায় সমাজবিরোধীদের গন্ডগোলের জেরে মানুষজন রীতিমতো আতঙ্কিত ও বিরক্ত। গোটা এলাকা থমথমে। গন্ডগোলের সময় গুলি চালানোর অভিযোগ উঠেছে। যদিও পুলিশ গুলি চালানোর বিষয়টি অস্বীকার করেছে। এইদিন বিকালে ঝিনতালাব এলাকায় গাটারপাড়া এলাকার সমাজবিরোধী সোনু মিশ্রের নেতৃত্বে একটি দল পৌঁছায়। তারপরেই ঝিনতালাব এলাকার দাদাভাই পোস্তর দলের সঙ্গে গন্ডগোল শুরু হয়।

তখনই গুলি চালানোর অভিযোগ উঠে। ঘটনায় সোনু মিশ্র জখম হয়েছে। তাঁর অভিযোগ ঝিনতালাব এলাকায় রাজা নামে কেউ একজন তাঁকে ডেকে পাঠায়। তিনি কয়েকজনকে নিয়ে সেখানে পৌছানোর পরেই গন্ডগোল শুরু করে পোস্ত ও শের খাঁর দল। তাঁর অভিযোগ ওইসময় তাঁকে লক্ষ্য করে গুলি চালানো হয়। মাথা সরিয়ে নেওয়ায় প্রাণে বেঁচে যান। কিন্তু তাঁকে হকি স্টিক দিয়ে মাথায় আঘাত করা হয়েছে বলে তিনি জানালেন।

এদিকে গন্ডগোলের খবর পাওয়ার পরই খড়গপুর মহকুমা পুলিশ আধিকারিক দীপক সরকারের নেতৃত্বে খড়গপুর টাউন থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। ততক্ষণে অবশ্য সমাজবিরোধীরা পালিয়ে যায়। তবে এই ব্যাপারে খড়গপুর মহকুমা পুলিশ আধিকারিক দীপক সরকার বলেছেন ” দুই পক্ষের মধ্যে একটি গন্ডগোল হয়েছে।

তবে গুলি চালানোর কোনও প্রমাণ পাওয়া যায় নি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।” জানা গিয়েছে ঘটনার পর থেকে পোস্ত উধাও হয়ে গিয়েছে। এই দুই গোষ্ঠী বর্তমানে জেল বন্দী খড়গপুর শহরের দুই মাফিয়ার নিয়ন্ত্রণাধীন বলে জানা গিয়েছে।

এই দুই সমাজবিরোধী গোষ্ঠীর গন্ডগোলের জেরে এলাকা মাঝেমধ্যেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। পুলিশ জানিয়েছে ঘটনার পর রাত পর্যন্ত কোনও অভিযোগ দায়ের হয় নি। তবে ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। আর এলাকায় পুলিশের টহলদারি রয়েছে।