বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্ক জেনে ফেলায়,নারায়ণগড়ে অপমানে আত্মঘাতী গৃহবধূ

নিজস্ব সংবাদদাতা,নারায়ণগড়: বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক জেনে ফেলায় অপমানে গলাই দড়ির ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী হলেন এক গৃহবধূ। মঙ্গলবার দুপুরে এমনি চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার নারায়ণগড় থানার পারুলিয়া গ্রামীন এলাকায়। ঘটনাকে কেন্দ্র তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়।

মৃতের নাম কবিতা পাল সামন্ত,বয়স ২৫ বছর। স্থানীয় ও পরিবার সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার দুপুরে নিজের ঘরে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় গৃহবধূর মৃতদেহ উদ্ধার হয়। মৃত কবিতা পালের সঙ্গে গ্রামের এক যুবকের সঙ্গে বেশ কয়েক বছর ধরে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক ছিল। জানা যায়, গত কয়েকদিন ধরে ওই গৃহবধূ বাড়িতে বেশিরভাগ সময়ই ফোন নিয়ে ব্যস্ত থাকতেন।

তারপরই পরিবারের লোকজন জানতে পারে স্থানীয় এক যুবকের সঙ্গে বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্ক রয়েছে ওই গৃহবধূ। জানাজানি হওয়ার পর বিগত বেশ কয়েকদিন ধরে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিবাদ চলে। সেইমত আজও স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিবাদ শুরু হয়। ঘটনার খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়ছে স্থানীয় গ্রামবাসীরা ভিড় জমায়।

তারপরেই অপমানে নিজের ঘরের ভিতরে গলাই দড়ি নিয়ে আত্মঘাতী হয় ওই গৃহবধূ। ঘটনার খবর পেয়ে নারায়ণগড় থানার পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য খড়্গপুর মহকুমা হাসপাতালে পাঠিয়েছে। এদিকে মৃত গৃহবধূর স্বামী বলেন,তার স্ত্রী সঙ্গে এলাকার এক যুবকের সঙ্গে বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল। সেই কথা জানাজানি হতেই অপমানে নিজের ঘরের ভিতরে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মঘাতী হন গৃহবধু।

এদিকে ঘটনার পরে নারায়ণগড় থানায় মৃতের পরিবারের তরফে একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।