BREAKING: তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে উত্তপ্ত দাঁতন, আহত একাধিক

খড়গপুর ২৪×৭ ডিজিটাল: সোমবার দুপুরে তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে উঠলো দাঁতন।

ঘটনাটি ঘটেছে দাঁতন-১ নং ব্লকের আলিকশা গ্রাম পঞ্চায়েতের মুকুন্দপুর এলাকায়। সংঘর্ষে আহত হয়েছেন ছয়জন তৃণমূল কর্মী। আহত তৃণমূল কর্মীরা দাঁতন গ্রামীণ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এলাকা উত্তপ্ত থাকায় ঘটনাস্থলে রয়েছে বিশাল পুলিশ বাহিনী।

জানা গেছে, বিধানসভা ভোটের ফল ঘোষণার পর থেকেই মুকুন্দপুর এলাকায় বেশ কয়েকটি বিজেপি সমর্থকের বাড়ি থেকে বেরোনোর রাস্তা বেড়া দিয়ে ঘিরে দেয় তৃণমূল কর্মী সমর্থকরা। তার সঙ্গে পানীয় জল বন্ধ করে দেয় বলে অভিযোগ। তারপর থেকেই মাঝেমধ্যে বিজেপি কর্মীদের সঙ্গে তৃণমূল কর্মীদের বচসা লেগেই থাকত।

আজ দুপুরে, এই নিয়ে তৃণমূল-বিজেপি দুই পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। তৃণমূলের অভিযোগ, বিজেপি কর্মী সমর্থকরা তৃণমূল কর্মীদের দেখে গালিগালাজ সহ অশ্লীল মন্তব্য করে।

ঘটনায় দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি বেধে গেলেও প্রাথমিকভাবে বিষয়টি মিটমাট হয়ে যায়। অভিযোগ ঘটনার বেশ কিছুক্ষণ পরে বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা রড- লাঠি ধারালো অস্ত্র নিয়ে এসে তৃণমূল কর্মীদের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। বেধড়ক মারধর করা হয়।

তৃণমূলের দাবি এই ঘটনায়, এক মহিলাসহ মোট ছয়জন তৃণমূল কর্মী গুরুতর আহত হয়। আহত তৃণমূল কর্মীদের উদ্ধার করে দাঁতন গ্রামীণ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতরা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

অন্যদিকে বিজেপির তরফ থেকে সম্পূর্ণ অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে। পাল্টা বিজেপির নেতৃত্বদের অভিযোগ, উক্ত এলাকায় আদিবাসী সম্প্রদায়ের পরিবার রয়েছে। তারা বিজেপির সমর্থক হওয়ায় বিধানসভা ভোটের ফলাফল ঘোষণার পর থেকে। ওই আদিবাসী সম্প্রদায়ের পরিবারগুলিকে রাস্তা থেকে বেরোনোর সহ পানীয় জল বন্ধ করে দেওয়া হয়। ঘটনায় আজ বিজেপি কর্মীরা প্রতিবাদ করতে গেলে তাদেরকে তৃণমূল কর্মীরা বেধড়ক মারধর করে। ঘটনায় বিজেপি-র দুই মহিলা আহত হয়েছেন বলে দাবি বিজেপির।

এদিকে এই ঘটনার পর তৃণমূল-বিজেপি দুই পক্ষের তরফে দাঁতন থানায় একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কাউকে আটক কিংবা গ্রেপ্তার করা যায়নি।