সবংয়ে স্ব-সহায়ক দলের সদস্যদের মধ্যে টাকা পয়সা নিয়ে বচসা,জখম ৩

খড়গপুর ২৪×৭ ডিজিটাল: স্ব-সহায়ক দলের সদস্যদের মধ্যে টাকা পয়সা নিয়ে গন্ডগোল। সেই গন্ডগোলে স্ব-সহায়ক দলের নেত্রী তথা এক বিজেপি নেত্রী ও তাঁর শ্বশুর জখম হয়েছেন।

অপরদিকে স্ব-সহায়ক দলের অন্য এক মহিলা জখম হয়েছেন। আর এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এখন রাজনীতির রঙ লেগেছে। যদিও ঘটনার সাথে রাজনীতির কোনও সম্পর্ক নেই বলে জানিয়েছে তৃণমূল। তবে এই ঘটনা নিয়ে তরজা শুরু হয়েছে তৃণমূল ও বিজেপির মধ্যে। থানায় উভয়পক্ষ অভিযোগ দায়ের করেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সবং থানার ডাঁডরা গ্ৰাম পঞ্চায়েতের কলসবার গ্ৰামে। জানা গিয়েছে মঙ্গলবার স্ব সহায়ক দলের নেত্রী সুষমা সামন্তের বাড়িতে একটি সভা হয়। সেখানে টাকা পয়সা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে বচসা শুরু হয়। সেই বচসা থেকে গন্ডগোল হয়। অভিযোগ সন্ধ্যাবেলায় স্ব-সহায়ক দলের নেত্রী তথা বিজেপির মহিলা মোর্চার নেত্রী সুষমা সামন্তের শ্বশুর কলসবার বাজারে যান।

সেখানে তাঁর কাছে কয়েকজন স্ব সহায়ক দলের টাকা তোলা নিয়ে কৈফিয়ত তলব করেন। সেই নিয়ে বচসা শুরু হয়। অভিযোগ সেইসময় তারাপদ বাবুকে মারধর করা হয়। তাতে তাঁর ডান হাত ভেঙ্গে যায়। এদিকে শ্বশুড়কে মারধর করার খবর পেয়ে সেখানে উপস্থিত হন সুষমাদেবী সহ পরিবারের বাকি সদস্যরা। তাঁরা দলের এক মহিলা সদস্যের বাড়িতে চড়াও হয়। অভিযোগ তাঁর মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয়।

এই নিয়ে গন্ডগোল বড় আকার ধারণ করে। অভিযোগ সেইসময় চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা সুষমাদেবীকে মারধর করা হয়। বর্তমানে সুষমাদেবী ও তাঁর স্বামী ডেবরার একটি নার্সিংহোমে ভর্তি রয়েছেন। আর অপর মহিলা সবং গ্ৰামীণ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। ঘটনার পর রাতের দিকে সুষমাদেবীর স্বামী প্রতাপ সামন্ত থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অপরদিকে জখম মহিলা পাল্টা একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। এই ব্যাপারে বিজেপির সবং পশ্চিম মন্ডলের সাধারন সম্পাদক উত্তম দাস বলেছেন গোটা ঘটনার সাথে তৃণমূল যুক্ত। তাঁরাই অযথা গন্ডগোল করেছে। অপরদিকে ডাঁডরা গ্ৰাম পঞ্চায়েত প্রধান শঙ্কর লায়া বলেছেন এই ঘটনার সঙ্গে রাজনীতির কোনও সম্পর্ক নেই।

বিজেপি জোর করে রাজনৈতিক রঙ লাগাচ্ছে। গোটা ঘটনাটি স্ব সহায়ক দলের টাকা পয়সা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে। আর পুলিশ জানিয়েছে উভয়পক্ষ পরস্পরের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। তবে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।