Sunday, September 19, 2021
Homeজেলাপশ্চিম মেদিনীপুরস্মারকলিপি জমা দিতে গিয়ে বনদপ্তরের অফিসে ভাঙচুর অস্থায়ী বনকর্মীদের,খড়গপুরে চাঞ্চল্য

স্মারকলিপি জমা দিতে গিয়ে বনদপ্তরের অফিসে ভাঙচুর অস্থায়ী বনকর্মীদের,খড়গপুরে চাঞ্চল্য

- Advertisement -

খড়গপুর ২৪×৭ ডিজিটাল: অস্থায়ী বনকর্মীদের বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠল খড়গপুর গ্ৰামীণ থানার হিজলি সোসাইটি এলাকায় অবস্থিত বন দফতরের খড়গপুর বিভাগীয় কার্যালয়। বিভাগীয় বন আধিকারিককে কার্যালয়ে না পেয়ে ক্ষোভে ফেটে পড়েন স্মারকলিপি দিতে আসা অস্থায়ী বনকর্মীরা।

একাংশ বনকর্মীরা বিভাগীয় কার্যালয়ের ভেতরে ঢুকে ব্যাপক ভাঙচুর করে। ভেঙ্গে দেওয়া হয়েছে টবগুলি। তুলে আছড়ে ফেলা হয়েছে কার্যালয়ের বারান্দায় রাখা একাধিক চেয়ার। বাধা দেওয়ার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন কার্যালয়ের কর্মচারীরা। খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (খড়গপুর) রানা মুখোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে খড়গপুর গ্ৰামীণ ও টাউন থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

- Advertisement -

এই ব্যাপারে বন দফতরের খড়গপুর বিভাগের আধিকারিক শিবানন্দ রাম জানিয়েছেন আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সোমবার স্মারকলিপি প্রদানকারীদের নেতাদের জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল না আসতে। কারন তিনি থাকতে পারবেন না। কিন্তু তারপরেও তাঁরা এসেছেন। আর সম্পত্তি ভাঙচুর করেছে। অপরদিকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (খড়গপুর) রানা মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন সন্ধ্যা পর্যন্ত কোনও অভিযোগ দায়ের হয়নি।

তবে তাঁর ধারনা অভিযোগ দায়ের করা হবে। তিনি জানিয়েছেন বিভাগীয় বন আধিকারিককে না পাওয়ায় পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। মঙ্গলবার দুপুরে ঝাড়গ্ৰাম, পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার বন দফতরের বিভিন্ন রেঞ্জ এলাকার অস্থায়ী বনকর্মীরা খড়গপুর গ্ৰামীণ থানার হিজলি সোসাইটি এলাকায় অবস্থিত বন দফতরের খড়গপুর বিভাগের কার্যালয়ে আসেন স্মারকলিপি দিতে। আইএনটিটিইউসির ব্যানার নিয়ে এই কর্মসূচি হয়েছে।

তাঁদের মূল দাবি অস্থায়ী বনকর্মীদের স্থায়ীকরণ করতে হবে। এছাড়া রয়েছে কোনও অস্থায়ী বনকর্মীকে ব্যাক্তিগত কাজে আধিকারিকরা ব্যবহার করতে পারবেন না। ২৪ ঘন্টার ডিউটির বদলে আট ঘণ্টা ডিউটি করাতে হবে। আর হুলাপার্টির সদস্যদের ২৬ দিনের বেতন দিতে হবে। এই ব্যাপারে অস্থায়ী বনকর্মীদের নেতা ঝাড়েশ্বর মাহাতো জানিয়েছেন এই চারটি দাবিতে আগেও কয়েকবার স্মারকলিপি দেওয়া হয়েছে। কিন্তু কোনও কাজ হয়নি।

পাশাপাশি তিনি অস্থায়ী বনকর্মীদের দিয়ে আধিকারিকের ব্যাক্তিগত কাজ করানোর প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন ” এইভাবে অস্থায়ী বনকর্মীদের দিয়ে ব্যাক্তিগত কাজ করানো বন্ধ করতে হবে।” আর তরুণ মজুমদার নামে এক অস্থায়ী বনকর্মী জানিয়েছেন ঠিকঠাক বেতন দেওয়া হয় না। আর দীর্ঘদিন ধরে কাজ করার পরেও অনেকেরই বেতন বাড়ানো হয় নি।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

error: Content is protected !!