Thursday, September 23, 2021
Homeজেলাপশ্চিম মেদিনীপুরসবংয়ে জলমগ্ন এলাকা পরিদর্শনে মন্ত্রী মানস ভূঁইয়া

সবংয়ে জলমগ্ন এলাকা পরিদর্শনে মন্ত্রী মানস ভূঁইয়া

- Advertisement -

খড়গপুর ২৪×৭ ডিজিটাল: গত কয়েকদিন অতি ভারী বৃষ্টিপাতের জন্য পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার সবং ব্লকের ১৩ নম্বর বিষ্ণুপুর অঞ্চলের নাগলকাটা এলাকায় একটি কাঠের সেতু জলের তলায় চলে গিয়েছে৷ ফলে ভগবানপুর,ময়না পটাশপুর এই তিনটি এলাকা সবং থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়৷ সবং-এর পাঁচটি সংসদ প্রায় ১২ হাজার মানুষ সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।

 

- Advertisement -

 

এই পরিস্থিতিতে গ্রামবাসীরা যাতায়াতের জন্য ব্যবস্থা করা হয়েছে নৌকার৷ কিন্তু নদীতে কচুরিপানা থাকার কারণে নৌকাও চালানোতে অনেকটাই সমস্যা হচ্ছে। ইতিমধ্যেই এই পরিস্থিতির পরেই আজ শনিবার বিকেলে ওই এলাকা পরিদর্শনে যান রাজ্যের জলসম্পদ মন্ত্রী মানস রঞ্জন ভুঁইয়া।

 

সঙ্গে ছিলেন প্রাক্তন বিধায়ক গীতা রানী ভূঁইয়া, সবং ব্লক সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক তুহিন শুভ্র মহান্তি, সবং থানা ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক সুব্রত বিশ্বাস, জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সহ-সভাপতি বিকাশ রঞ্জন ভূইয়া,তৃণমূলের ব্লক সভাপতি অমল কুমার পান্ডা সবং ব্লক মৎস্য ও প্রাণি দপ্তরে কর্মাধ্যক্ষ আবু কালাম বক্স সহ অন্যান্যরা। পরিদর্শনের পর এলাকার পঞ্চায়েত-প্রধান সহ অন্যান্য প্রতিনিধিদের সঙ্গে আলোচনা করেন।

 

এদিন পরিদর্শন শেষে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে একরাশ ক্ষোভ উগরে দিলেন জলসম্পদ মন্ত্রী মানস ভুঁইয়া। তিনি বলেন,দীর্ঘ চল্লিশ বছরের চেষ্টায় ২০১০ সালে  ৬৫০ কোটি টাকা মঞ্জুর করা হয়েছিল। ৬৫০ কোটি টাকার মধ্যে ৩৭৮ কোটি টাকা খরচ হয়েছে। বাকি ২২২ কোটি টাকা জন্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বারবার কেন্দ্রের কাছে অনুরোধ করছেন চিঠি দিয়েছেন। কিন্তু এখনো অবদি কেন্দ্রের বিজেপি সরকার বকেয়া টাকা দেয়নি।

 

ফলের নাঙ্গলকাটা,শিউলিপুর,ধামসাই, রাউতরাবাড়ি সহ বেশকিছু এলাকায় এই ব্রিজগুলো টাকা না থাকায় ব্রিজগুলির কাজ করা যাচ্ছে না। এর ফলে প্রতিবছর বর্ষার সময় কাঠের ব্রিজ জলে ডুবে যাচ্ছে। যার জেরে জল যন্ত্রনায় ভুগছেন এলাকার সাধারণ মানুষ।

 

এর পাশাপাশি তিনি বলেন, এই জল জমার পিছনে মূল সমস্যা হচ্ছে সরকারি জায়গায় অবৈধ ভেড়ি গজিয়ে উঠছে। বেশকিছু বেআইনি ইটভাটা রয়েছে। এইসব ভেরি তৈরি করার জন্য নদীর চর থেকে মাটি কেটে ভেড়ির কাজে লাগানো হচ্ছে। যার ফলে প্রতিবছরই সাধারণ মানুষকে এই সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে।

 

 

 

RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

error: Content is protected !!