Thursday, September 23, 2021
Homeজেলাপশ্চিম মেদিনীপুরবকেয়া বেতনের দাবিতে, খড়গপুরে শ্রমিক সংগঠনের বিক্ষোভ

বকেয়া বেতনের দাবিতে, খড়গপুরে শ্রমিক সংগঠনের বিক্ষোভ

- Advertisement -

খড়গপুর ২৪×৭ ডিজিটাল: একদিকে ট্রেন চালানোর দাবি। অপরদিকে রেলের ঠিকাশ্রমিকদের বকেয়া বেতন দেওয়া ও কাজের ব্যবস্থা ‌করার দাবি।

মঙ্গলবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত বামপন্থীদের দুটি সংগঠনের বিক্ষোভ আন্দোলনের জেরে সরগরম রইল খড়গপুর স্টেশন লাগোয়া বোগদা এলাকা। এইদিন রেল হকার্সদের উপর আরপিএফের জুলুমবাজী ও ট্রেন চালানোর দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ হয় এআইটিইউসির উদ্যোগে। এই আন্দোলনে সামিল হয় সিটু থেকে শুরু করে আইএনটিইউসি , টিইউসিসি ও আইএনটিটিইউসির নেতারা।

- Advertisement -

এদিন রেল হকাররা থার্মোকলের থালা ও বাটি নিয়ে পথে নামেন। দাবি করেন অবিলম্বে ট্রেন চালানোর। অপরদিকে রেলের ঠিকাদার শ্রমিকদের সংগঠন রেলওয়ে কন্ট্রাচুয়াল লেবার ইউনিয়নের উদ্যোগে রেলের ঠিকা শ্রমিকদের গত এক বছরের বকেয়া মজুরি দেওয়ার দাবিতে রেলের খড়গপুর ডিভিশনের ডিআরএমের কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ অবস্থান করা হয়েছে।

এই দুটি সংগঠনের অবস্থান ও বিক্ষোভের জেরে গোটা এলাকা সরগরম ছিল। এই ব্যাপারে এআইটিইউসির জেলা সম্পাদক বিপ্লব ভট্ট বলেছেন দীর্ঘ এক বছর ধরে রেল হকারদের রোজগার নেই। কার্যত তাঁদেরকে অনাহারে দিন কাটাতে হচ্ছে। এই মানুষগুলির স্বার্থে কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকার উভয়েই উদাসীন। তাই তাঁদের দাবি অবিলম্বে সমস্ত ট্রেন চালাতে হবে। যাতে ফের হকারি করে কিছু রোজগার করতে পারে।

আর বর্তমানে সীমিত সংখ্যক ট্রেন চলছে। রুটি রুজির আশায় হকাররা এই ট্রেনগুলিতে উঠলে আরপিএফের জুলুমবাজি শুরু হয়। হকারদের কাছ থেকে জোর করে টাকা পয়সা কেড়ে নেওয়া হয় বলে তাঁর অভিযোগ। তিনি সাফ জানিয়েছেন সমস্ত বিষয়টি রেলের খড়গপুর ডিভিশনের ডিআরএম থেকে শুরু করে আরপিএফের শীর্ষ মহলে জানানো হয়েছে। কোনও বিহিত না হলে প্রয়োজনে রেল অবরোধের ইঙ্গিত দিয়েছেন তিনি।

আর রেলওয়ে কন্ট্রাচুয়াল লেবার ইউনিয়নের খড়গপুর শাখার সভাপতি অনিল দাস জানিয়েছেন রেলের ঠিকা শ্রমিকদের মজুরি বকেয়া রয়েছে গত দেড় বছর ধরে। এমনকি পিএফ, ইএসআইয়ের সুবিধা পর্যন্ত ঠিকা শ্রমিকদের দেওয়া হচ্ছে না। বিষয়গুলি নিয়ে রেল কর্তৃপক্ষ থেকে শুরু করে ঠিকাদারদের বহুবার বলা হয়েছে। কিন্তু কোনও কাজ হয় নি।

তবে তিনি জানিয়েছেন এইদিন রেলের খড়গপুর ডিভিশনের ডিআরএম মনোরঞ্জন প্রধান আশ্বাস দিয়েছেন দাবিগুলি খতিয়ে দেখবেন বলে।

পাশাপাশি তিনি জানিয়েছেন কর্মরত অবস্থায় ট্রেনে দু পা কেটে যাওয়া থমাস নামে এক ঠিকা শ্রমিকের দায়িত্ব রেল কর্তৃপক্ষকে নিতে হবে। উপস্থিত ছিলেন মনোজ ধর, শ্যামল ঘোষ সহ অনেকে। এইদিন এই সংগঠনের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে সমস্ত ঠিকা শ্রমিকদের ভ্যাকসিন দেওয়ার ব্যবস্থা রেল কর্তৃপক্ষকে করতে হবে।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

error: Content is protected !!