Sunday, September 19, 2021
Homeজেলাপশ্চিম মেদিনীপুরখড়গপুরে CPIM-এর বিদায়ী কাউন্সিলর তথা কোঅর্ডিনেটরের বিরুদ্ধে খুঁজে না পাওয়ার পোস্টার পড়ল,...

খড়গপুরে CPIM-এর বিদায়ী কাউন্সিলর তথা কোঅর্ডিনেটরের বিরুদ্ধে খুঁজে না পাওয়ার পোস্টার পড়ল, শুধু রাজনৈতিক তরজা

- Advertisement -

খড়গপুর ২৪×৭ ডিজিটাল: এবারে সিপিআইএমের বিদায়ী কাউন্সিলর তথা কোঅর্ডিনেটরের বিরুদ্ধে খুঁজে না পাওয়ার পোস্টার পড়ল। তাও আবার কোনও বিরোধী দলের পক্ষ থেকে নয়।

বাম শরিক সিপিআইয়ের যুব সংগঠনের পক্ষ থেকে এই পোস্টারে ছয়লাপ করে দেওয়া হয়েছে গোটা এলাকায়। তবে শুধু শরিক দলের বিদায়ী কাউন্সিলর তথা কোঅর্ডিনেটরকে খুঁজে না পাওয়া নয়। এলাকায় উন্নয়ন না হওয়া ও গত ছয় বছরে পুরসভার তহবিল থেকে পাওয়া টাকা পয়সার কোনও হিসাব প্রকাশ্যে না জানানোর বিষয়গুলিও অনেক পোস্টারে উল্লেখ করা হয়েছে।

- Advertisement -

আর এই পোস্টার নিয়ে শুক্রবার সকাল থেকে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে খড়গপুর পুরসভার ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডের বিস্তীর্ণ এলাকায়। পোস্টার লাগানো হয়েছে ওয়ার্ডের রবীন্দ্রপল্লী, তালবাগিচা, দীনেশনগর সহ আরও কিছু এলাকায়। পোস্টারে লেখা হয়েছে ” ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডে বর্ষায় যে দুরাবস্থা কাউন্সিলরের সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে না কেন।”

লেখা হয়েছে ” ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডের রবীন্দ্রপল্লী এলাকা যখন জলে ডুবে ছিল কাউন্সিলর তখন তুমি কোথায় ছিলে।” উন্নয়নের প্রসঙ্গে লেখা হয়েছে ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডের সমস্ত খারাপ রাস্তা অবিলম্বে মেরামত করতে হবে।” ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডের সমস্ত নালি নর্দমা অবিলম্বে পরিষ্কার করতে হবে। এরকম আরও বেশ কিছু বিষয় উল্লেখ করা হয়েছে পোস্টারে।

এই ব্যাপারে সিপিআইয়ের যুব সংগঠন এআইওয়াইএফের খড়গপুর শহর কমিটির সম্পাদক মৃদুল দে এই পোস্টার সংগঠনের পক্ষ থেকে দেওয়া হয়েছে বলে স্বীকার করেছেন। তিনি বলেন ” দীর্ঘদিন ধরে দেখতে পাচ্ছি ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পুরসভার ফান্ড থেকে যা টাকা পেয়েছেন সেটা কোন খাতে কত টাকা ব্যয় করেছেন আমাদের জানাননি।

রবীন্দ্রপল্লী সহ গোটা ওয়ার্ডের কোথাও কোনও উন্নয়ন হয় নি। তিনি ব্যর্থ।” পাশাপাশি শরিক দলের বিদায়ী কাউন্সিলর তথা কোঅর্ডিনেটরের বিরুদ্ধে এইধরনের পোস্টার তাঁরা এলাকার মানুষের উন্নয়নের জন্য ও মানুষের পাশে থাকার জন্য লাগিয়েছেন বলে জানিয়েছেন। তিনি বলেন ” জোটে আছি মানে উন্নয়ন করবেন না। আমরা পোস্টারিং করব না। এটা হয় না।” মানুষের জন্য উন্নয়নটি শেষ কথা বলে তিনি মন্তব্য করলেন।

অপরদিকে এই ওয়ার্ডের সিপিআইএমের বিদায়ী কাউন্সিলর তথা কোঅর্ডিনেটর স্মৃতিকণা দেবনাথ এই পোস্টার লাগানোকে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে উল্লেখ করে বললেন ” কি কাজ হয়েছে সেটা এলাকাবাসী জানেন। গত ছয় বছরে অনেক উন্নয়নের কাজ হয়েছে।” আর সিপিআইএমের খড়গপুর শহর দক্ষিণ এরিয়া কমিটির সম্পাদক অমিতাভ দাস সাফ জানালেন এইভাবে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে পোস্টার লাগানোর বিষয়টি নিয়ে বামফ্রন্টের সভায় তুলবেন।

পাশাপাশি তিনি বলেছেন ” খড়গপুর পুরসভার একমাত্র এই ওয়ার্ডে কাউন্সিলর কোনও কাটমানি নেয় না। কেউ প্রমাণ করে দিতে পারলে রাজনীতি ছেড়ে দেব।” তবে খড়গপুরে পুরসভা নির্বাচনের আগে দুই বাম শরিকের এই প্রকাশ্য বিরোধে বিরোধী পক্ষ বিশেষ করে তৃণমূলকে যথেষ্ট উজ্জিবীত করে তুলেছে। কারন গত পুরসভা নির্বাচনে এই ওয়ার্ডটি সিপিআইএম ছিনিয়ে নিয়েছিল তৃণমূলের থেকে।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

error: Content is protected !!