Thursday, September 23, 2021
Homeজেলাপশ্চিম মেদিনীপুরনিজের বিধানসভা কেন্দ্রের একাধিক বাজার ঘুরে,পরিষেবা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করলেন বিধায়ক হিরণ...

নিজের বিধানসভা কেন্দ্রের একাধিক বাজার ঘুরে,পরিষেবা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করলেন বিধায়ক হিরণ চট্টোপাধ্যায়

- Advertisement -

খড়গপুর ২৪×৭ ডিজিটাল: নিজের বিধানসভা কেন্দ্র খড়গপুর শহরের গোলবাজার এলাকায় সবজি মার্কেট ও পাইকারি বাজার পরিদর্শন করলেন বিজেপির তারকা বিধায়ক হিরণ। শনিবার সকালে গোলবাজার এলাকায় সবজি মার্কেটে জলকাদা পাড়িয়ে পূতিগন্ধময় পরিবেশ পরিদর্শন করে রীতিমতো ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন বিধায়ক।

তিনি এই পরিস্থিতির জন্য রেল কর্তৃপক্ষ থেকে শুরু করে রাজ্যে পূর্বতন কংগ্ৰেস,বাম ও বর্তমানে তৃণমূল সরকারের সমালোচনায় সরব হয়েছেন। পাশাপাশি সবজি মার্কেটের সবজি বিক্রেতা থেকে শুরু করে পাইকারি বাজারের ব্যবসায়ীদের আশ্বস্ত করেছেন রেলমন্ত্রীর সাথে ফের দেখা করে এই বাজার এলাকার পরিস্থিতির উন্নতিতে সচেষ্ট হবেন।

- Advertisement -

তারসাথে দলের নেতাদের অনুরোধ করেছেন গোটা গোলবাজার এলাকায় এইধরনের সবজি বিক্রেতা থেকে শুরু করে ছোটো বড় সমস্ত ধরনের দোকানের একটি তালিকা দ্রুত তৈরি করে তাঁর কাছে জমা দিতে।এইদিন বিধায়ক হিরণকে হাতের সামনে পেয়ে গোলবাজার এলাকায় সবজি মার্কেটের সবজি বিক্রেতারা তাঁদের সমস্যাগুলি তুলে ধরেন। বিশেষ করে তাঁদের সবজি বিক্রির জন্য বসার স্থায়ী ব্যবস্থা করার দাবি জানিয়েছেন।

পাশাপাশি মার্কেটে নিকাশি ব্যাবস্থা ও রাস্তার দাবিও করেছেন সবজি বিক্রেতা থেকে শুরু করে সাধারন মানুষ। এছাড়া এইদিন বিধায়ক গোলবাজার পাইকারি বাজার পরিদর্শন করেন। সেখানেও রাস্তার বেহাল দশা দেখে তিনি বিরক্তি প্রকাশ করেছেন। বিনা অনুমতিতে বড় ও ভারি মাল বোঝাই লরি ও গাড়ি যাতায়াত বন্ধ করা প্রয়োজন বলে তিনি মনে করেন। এই ব্যাপারে তারকা বিধায়ক হিরণ বলেছেন ” স্বাধীনতার পর থেকে গত ৭৫ বছরে গোলবাজার এলাকায় কোনও উন্নয়ন হয় নি।

রেল কর্তৃপক্ষ থেকে শুরু করে আগের কংগ্রেস, বাম কিংবা বর্তমানে তৃণমূল সরকার কেউ এই এলাকার উন্নয়ন নিয়ে ভাবনা চিন্তা করে নি। এমনকি বর্তমান পুরসভাও কোনও কাজ করে নি এই এলাকার উন্নয়নে।” এই প্রসঙ্গে তিনি খড়গপুর পুরসভার প্রশাসক তথা প্রাক্তন বিধায়ক প্রদীপ সরকারের নাম উল্লেখ না করে কটাক্ষ করে বলেন ” রেলের জায়গা দখল করে বিশাল আয়তনের বাতানুকূল কার্যালয় তৈরি করতে পারলেও পুরসভার অন্তর্গত এই সবজি মার্কেট সহ পাইকারি বাজার এলাকার উন্নয়ন করতে পারলেন না।”

পাশাপাশি তিনি বলেছেন গত ৭৫ বছরের এই অনুন্নয়ন দ্রুত পরিবর্তন করা যাবে না। তবে ইচ্ছা ও চেষ্টা রয়েছে আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে গোলবাজার সহ গোটা খড়গপুর শহরকে স্বর্গ বানানোর।” যদিও এই ব্যাপারে বারবার ফোন করা হলেও ফোন ধরেন নি খড়গপুর পুরসভার চেয়ারপারসন তথা প্রাক্তন বিধায়ক প্রদীপ সরকার। ফলে তাঁর কোনও বক্তব্য পাওয়া যায় নি। এইদিন বিধায়কের সাথে ছিলেন বিজেপির খড়গপুর শহর মধ্য মন্ডলের সভাপতি তারকেশ্বর রাও, ব্যবসায়ী শাখার নেতা শৈলেশ শুক্লা প্রমুখ।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

error: Content is protected !!