Thursday, September 23, 2021
Homeজেলাপশ্চিম মেদিনীপুরখড়গপুরে দূষণ রুখতে পুকুর সংস্কার করার দাবি

খড়গপুরে দূষণ রুখতে পুকুর সংস্কার করার দাবি

- Advertisement -

খড়গপুর ২৪×৭ ডিজিটাল: পুকুরের জল দূষণের হাত থেকে এলাকার বাসিন্দাদের রক্ষা করার জন্য এবারে সরকারের বিভিন্ন মহলের দ্বারস্থ হলেন পুকুর পরিচালন কমিটি সহ এলাকার বাসিন্দারা। মহকুমা শাসক থেকে শুরু করে বিধায়ক, সাংসদ সহ পুরসভার চেয়ারপারসন ও থানার আইসির কাছে দুটি পিটিশন জমা করা হল।

একটি পুকুর পরিচালন কমিটির পক্ষ থেকে। অপরটি এলাকার বাসিন্দাদের পক্ষ থেকে। খড়গপুর পুরসভার সাত নম্বর ওয়ার্ডের শতাব্দী প্রাচীন পদ্মপুকুর। এই পুকুরটি এখন এক ধরনের জলজ উদ্ভিদে ভরে গিয়েছে। আর এই পুকুরের জল থেকে দুর্গন্ধ বেরোতে শুরু করেছে। ফলে পুকুরের চার পাশে বসবাস করা মানুষজনের জীবন দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে।

- Advertisement -

জলাশয়ে জন্ম নেওয়া এই জলজ উদ্ভিদের দুর্গন্ধে আশপাশের মানুষ টিকতে পারছেন না। তারসাথে গোটা এলাকায় পরিবেশ দূষণ হচ্ছে। শুধু তাই নয় এইভাবে জল দূষণ বাড়তে থাকলে অচিরেই এই এলাকার বাড়ির কুয়োর জল ধীরে ধীরে ব্যবহারের অনুপযুক্ত হয়ে পড়বে বলে আশংকা প্রকাশ করেছেন বাসিন্দারা। এই পুকুরটির উপর খড়গপুর পুরসভার ছয় ও সাত নম্বর ওয়ার্ডের বারো থেকে তেরো হাজার মানুষ প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে নির্ভরশীল।

একসময়ে এই পুকুরে মাছ চাষ করা হত। সেই মাছ ধরে ও বিক্রি করে অনেকের জীবিকা নির্বাহ হত। পাশাপাশি পুকুর পরিচালন কমিটির কিছু আয় হত। এখন সেসব একেবারে বন্ধ। শুধু তাই নয় এই পুকুরে এলাকার বেশ কয়েকটি দুর্গা পূজা থেকে শুরু করে কালি পুজা কমিটি ঠাকুর ভাষান দিত। গত দুই বছর ধরে এসব কিছু বন্ধ।

এমনকি খড়গপুর পুরসভার প্রয়াত কাউন্সিলর কমল কুন্ডুর শুরু করা এই পদ্মপুকুরে বালাজির বিয়ের অনুষ্ঠান গত দুই বছর ধরে বন্ধ রয়েছে একই কারনে। সবমিলিয়ে একসময়ে গোটা এলাকার পরম গর্ব ও ভরসাস্থল এই পদ্মপুকুর এখন মানুষের কাছে আতঙ্কের কারন হয়ে উঠেছে। যদিও বছর খানেক আগে একবার পুরসভার উদ্যোগে লক্ষাধিক টাকা খরচ করে এই পুকুরের সংস্কার করা হয়েছিল। কিন্তু কয়েক মাস ঘুরতেই ফের পুকুরে জলজ উদ্ভিদ গজিয়ে উঠেছে।

এই ব্যাপারে পদ্মপুকুর পরিচালন কমিটির সম্পাদক রূপেন মজুমদার জানিয়েছেন তাঁরা চান পুকুরটিকে রক্ষা করতে। এলাকাবাসীদের দূষণের হাত থেকে রক্ষা করতে। তিনি বলেন ” পুকুরটির আমূল সংস্কার করতে হবে। একেবারে জল ছেঁচে নীচ থেকে মাটি তুলে ফেলে সংস্কার করতে হবে। তা না হলে পুকুরটিকে রক্ষা করা সম্ভব হবে না।” তবে তিনি জানিয়েছেন বছর খানেক আগে একবার পুরসভার পক্ষ থেকে পুকুরটির সংস্কার করা হয়েছিল। জলে জমে থাকা কচুরিপানা থেকে শুরু করে জলজ উদ্ভিদ সরিয়ে ফেলা হয়েছিল।

কিন্তু তাতে সমস্যার স্থায়ী সমাধান হয় নি। সাময়িক স্বস্তি পাওয়া গিয়েছিল। তিনি বলেন ” আমরা চাই সরকার বহু পুরনো এই পুকুরটির জল দূষণ থেকে রক্ষা করার ব্যবস্থা গ্ৰহণ করুক। পুকুরটিকে রক্ষা করতে এগিয়ে আসুক।” অপরদিকে খড়গপুর পুরসভার চেয়ারপারসন প্রদীপ সরকার বলেছেন ” এর আগে একবার স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি মেনে সংস্কার করা হয়েছিল। কিন্তু বারবার সেটি সম্ভব নয়। আমরা চাই পুকুরটি পুরসভার হাতে দিয়ে দেওয়া হোক। তারপর যা করার করা হবে।”

RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

error: Content is protected !!