Sunday, September 19, 2021
Homeজেলাপশ্চিম মেদিনীপুরগোয়ালতোড়ে হাতির তাণ্ডব,ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

গোয়ালতোড়ে হাতির তাণ্ডব,ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

- Advertisement -

খড়গপুর ২৪×৭ ডিজিটাল: একের পর এক জঙ্গল লাগোয়া গ্রামগুলিতে দলমা দলের তান্ডব আবারও শুরু। সর্বশান্ত হচ্ছেন প্রান্তিক কৃষক থেকে গ্রামের গরীব মানুষ। পশ্চিম মেদিনীপুর ও বাঁকুড়া জেলার বর্ডার এলাকায় গোয়ালতোড় থানার আমলাশুলি, মাকলি, সারবোত এমন তিনটি অঞ্চল এলাকার ১২/১৪ টি মৌজায় চলছে সেই তান্ডব।

ভোর বেলায় লোকালয়ে ঢুকে পড়ছে হাতির পাল। গরীব মানুষের দলমার, কাঁচাবাড়ির দেওয়াল, জানলা দরজা ভেঙে শুঁড় দিয়ে ধান চাল তুলে নিয়ে চলে যাচ্ছে। আমজোড় মৌজায় হারাধণ রুইদাস, শম্ভু রুইদাস, জিতেন মাঝি সহ ২০ টি পরিবারের ঘর ভেঙে ধান চাল তুলে নেয় হাতির দল। শালতোড় মৌজায় রেশন দোকানের সাটার ভেঙে চাল গম খায় হাতির দল। ঘরের মধ্যে স্থানে চাল ধান বস্তা থাকছে তার গন্ধে সেই স্থানেই দরজা জানলা ভেঙে এমন তান্ডব চালাচ্ছে।

- Advertisement -

জেলার সবজি ভান্ডার এমন মৌজা গুলিতে করলা, উচ্ছে ঝিঙে বেগুন, বরবটি, চিচিঙ্গা এমন সবজির চাষ জমি গুলিতে ব্যাপক ক্ষতি।
আসরাফ খান, অশোক মাঝি এমন চাষীরা বলেন সাড়ে তিন হাজার টাকা দিয়ে এক কেজি করলা, উচ্ছের বীজ কিনে চাষ করেছি। ৩৫ দিনেই ফলন ধরে এখন মাঠ গুলিতে সবজি ভরে ওঠছে। আর ঠিক সেই সময়ে বন দপ্তরের উদাসীনতায় হাতির পাল এসে চাষের জমি ও লোকালয়ে তান্ডব চালাছে।

হাতি দল গত চারদিন ধরে এমন তান্ডব চালালেও বনদপ্তর হাতি তাড়ানোর জন্য কোনো উদ্যোগও নেয়নি বলে বলেন ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক সহ সাধারণ মানুষরা। এমন বর্ষার দিনে এবং গতকাল থেকে নিম্নচাপের বৃষ্টির সময়েই ভেঙে পড়া পরিবার গুলি সেই ভাঙা ঘরে থাকার সাহস পাচ্ছেনা এমন হাতির তান্ডবে। প্রতিবেশীর উঠানে। শিশুশিক্ষা কেন্দ্রের মাত্র দুটি ঘরে পরিবার গুলি এখন আশ্রয় নিয়েছে।

প্রসাশন ও বনদপ্তরের পক্ষ থেকে এখনো ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় পরিদর্শনে যাওয়া হয়নি এমনি অভিযোগ এলাকার মানুষের।

 

RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

error: Content is protected !!