বিপর্যয়ের সময়েও বিজেপির বিধায়কদের কাজ করতে দেওয়া হচ্ছে না,দাবি শুভেন্দু অধিকারীর

খড়গপুর ২৪×৭: ঘূর্ণিঝড় ইয়াস-এ রাজ্যের ক্ষতি হয়েছে কমপক্ষে ১৫ হাজার কোটি টাকার। বৃহস্পতিবার এমনটাই জানালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে এর মধ্যেও ভালো খবর হল, ঝড়ে প্রাণহানির সংখ্যা একেবারেই নগন্য। তবে নন্দীগ্রামের বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারীর দাবি, ইয়াস মোকাবিলায় একেবারেই ব্যর্থ রাজ্য সরকার।

বৃহস্পতিবার রেয়াপাড়ায় বিধায়ক কার্যালয়ে এক সাংবাদিক সম্মেলন করেন নন্দীগ্রামের বিধায়ক। সেখানে তিনি বলেন, ইয়াস মোকাবিলায় রাজ্য সরকার একেবারেই ব্যর্থ। সরকার ৭-৮ দিন আগে থেকেই এই বিপর্যয় সম্পর্কে অবগত ছিল। উপকূলবর্তী এলাকায় বাঁধগুলির অবস্থা শোচনীয়। সেগুলি সংস্কার করা হয়নি। এই বিপর্যয়ে মানুষ চরম কষ্টে রয়েছেন। এমন পরিস্থিতিতে আমরা রাজ্য সরকারের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করতে প্রস্তুত। কিন্তু দুর্গত এলাকায় বিজেপি বিধায়কদের কাজ করতে দেওয়া হচ্ছে না।

এদিন জেলার উপকূলবর্তী অঞ্চলগুলি ঘুরে দেখেন শুভেন্দু। ইয়াস-এ পূর্ব মেদিনীপুরের ক্ষতিই সবচেয়ে বেশি। শুভেন্দুর দাবি, প্রচার না করে আসল কাজটা করুর সরকার। জেলিংহামে দেখে এলাম মানুষজন ভিজে কাপড়ে রয়েছেন। তাদের জন্য কাপড়ের ব্যবস্থা করলাম। হলদিয়ায় ত্রাণ শিবিরে তৃণমূলের পতাকা লাগিয়ে দেওয়া হয়েছে। বিজেপির লোকজনদের ঢুকতে না দেওয়ার হুমকি দেওয়া হচ্ছে সেখানে। এই বিপর্যয়ে তৃণমূল ও প্রশাসনের লোকজনকে দেখতে পাচ্ছি না।