সোদপুরে ৭ দিন স্বামীর পাচাগল দেহ আগলে স্ত্রী, এলাকায় তীব্র চাঞ্চল্য

খড়গপুর ২৪×৭ ডিজিটাল: স্বামীর মৃতদেহ আগলে রইলেন বৃদ্ধা স্ত্রী। জানতেই পারলেন না বাড়ির অন্যান্য বাসিন্দারা। শেষপর্যন্ত দুর্গন্ধ বের হতেই খবর দেওয়া হয় পুলিসে। চাঞ্চল্যকর এমনই এক ঘটনা ঘটল সোদপুরের উত্তর পল্লি এলাকায়।

বাড়িটির উপরের তলায় থাকতেন অমিয় দাস(৮০) ও অঞ্জলী দাস(৭৫)। নীচের তলা ভাড়া দেওয়া হয়েছিল। অমিয় দাস ছিলেন সেসরকারি সংস্থার চাকুরে। বহুদিন হল অবসর নিয়েছেন। দুই ছেলেও সঙ্গে থাকেন না। প্রতিবেশীদের দাবি, স্বামী-স্ত্রীকে কয়েকদিন দেখা যাচ্ছিল না।

 

সোমবার সকালে বৃদ্ধা অঞ্জলী দাসকে কান্নাকাটি করতে দেখেন প্রতিবেশীরা। পাশাশাপশি একটা চাপা দুর্গন্ধও তারা পান। সঙ্গে সঙ্গে তারা খবর দেন খড়দহ থানায়। পুলিস এসে বৃদ্ধের পচাগলা মৃতদেহ উদ্ধার করে নিয়ে যায়। পুলিসের অনুমান কমপক্ষে ৭ দিন আগেই মারা গিয়েছেন ওই বৃদ্ধ।

পুলিস সূত্রে খবর, বৃদ্ধের স্ত্রী অঞ্জলী দাস মানসিক ভারসাম্যহীন। তাই এরকম ঘটনা ঘটেছে। ছেলেদের সঙ্গে তাদের কোনও সম্পর্ক ছিল না। তাদের একজন থাকেন দমদম। অন্যজন তার পাশেই থাকেন। প্রতিবেশীদের সঙ্গেও ওই দম্পতির খুব একটা যোগাযোগ ছিল না।